johirul

‘নবী করীম (সাঃ) এর নীতি-আদর্শ বাস্তবায়নের মধ্যে সকল অনাচার দূর করা সম্ভব’

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামিল মাদ্রাসার মাস্টার্স ২য় ব্যাচের বিদায় ,সাবেক মুহাদ্দিছ মাও. মোঃ জহিরুল ইসলামের বিদায় এবং সত্যিকার ওয়ারিশে নবীর বৈশিষ্ট্য ও করণীয় শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সেমিনারে বক্তারা বলেছেন- আমরা যার মুসলমান হিসেবে দাবী করছি এবং রাসুল্লাহ (সাঃ) এর উম্মত তারা অবশ্যই নবী করীম (সাঃ) রেখে যাওয়া পবিত্র কোরআন, হাদিস ও সুন্নাহ’র আলোকে প্রথমে নিজের জীবন ও পরিবারকেগঠন করবো। বিশ্বমানবতার দূত নবী করীম (সাঃ) জীবনাদর্শ বাস্তবায়ন হচ্ছে ওয়ারিশদের মূল দায়িত্ব ও কর্তব্য। বক্তারা বলেন- শিক্ষার্থীরা ইসলামের সঠিক চর্চা এবং নবীর আদর্শ অনুসরণ করলে তারা নিজেরাই একজন ভাল আলেম হিসেবে সমাজ হিতৈষী কাজে নিজেকে নিয়োজিত করতে সক্ষম হবেন। একজন ইমাম জুমার নামাজের খুতবায় যেভাবে মানুষকে সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ, যৌতুক বিরোধী, মাদক বিরোধী এবং জঙ্গীবাদ বিরোধী কথা বোঝাতে সক্ষম হন, তা অন্যকারো পক্ষে নিতান্তই কষ্টকর। তাই শিক্ষার্থীদের প্রকৃত শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত এবং একই সাথে শিক্ষকদেরও তাদের শিক্ষার্থীদের ভালভাবে পাঠদান করানো কর্তব্য। সুতরাং নবী করীম (সাঃ) এর নীতি আদর্শ বাস্তবায়ণের মধ্যে দিয়ে মাদকসহ সকল অনাচার দূর করা জন্য আলেম সমাজ এগিয়ে আসা দরকার।

শনিবার দুপুরে মাদ্রাসার তৃতীয় তলায় অধ্যক্ষ ড. মাওলানা এ কে এম মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোঃ আলী আফরোজ। প্রধান আলোচক হিসেবে ঢাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের সাবেক ডীন প্রফেসর মোহাম্মদ আবদুল অদুদ, বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ ড. মাও. আবদুর রশিদ, ঢাকা ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের প্রভাষক মুহাম্মদ জাহেদ উল্ল্যাহ।

এছাড়া অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ মুফতি এইচ এম আনোয়ার মোল্লা, হেড মোহাদ্দছ মাও. মমিনুল ইসলাম খান। এসময় উপস্থিত ছিলেন মাদ্রসার গর্ভনিং বডির সদস্য শফিকুল ইসলাম পাটওয়ারী, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, সাবেক সভাপতি মানুনুর রশিদ পাঠান, সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চক্রবর্তী।

এছাড়া বিদায়ী সাবেক মুহাদ্দিছ মাও. মোঃ জহিরুল ইসলামও বক্তব্য রাখেন।

অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার্থীরা ইসলামের সঠিক চর্চা এবং নবীর আদর্শ অনুসরণ করলে তারা নিজেরাই একজন ভাল আলেম হিসেবে সমাজ হিতৈষী কাজে নিজেকে নিয়োজিত করতে সক্ষম হবেন। একজন ইমাম জুমার নামাজের খুতবায় যেভাবে মানুষকে সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ, যৌতুক বিরোধী, মাদক বিরোধী এবং জঙ্গীবাদ বিরোধী কথা বোঝাতে সক্ষম হন, তা অন্যকারো পক্ষে নিতান্তই কষ্টকর। তাই শিক্ষার্থীদের প্রকৃত শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত এবং একই সাথে শিক্ষকদেরও তাদের শিক্ষার্থীদের ভালভাবে পাঠদান করানো কর্তব্য।

প্রকাশিত : ২৯ জুন ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

 54 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন