মতলব উত্তর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা স্বাধীনতা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা স্বাধীনতা পরিষদের নেতৃবৃন্দ এক সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। শনিবার (২৯ জুন) বিকাল ৫ ঘটিকার সময় উপজেলার সুজাতপুর বাজারে মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলী আহমদ মার্কেটের নীচতলায় এ সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মিয়া জাহাঙ্গীর আলম, মো. শাহআলম, কাজী আলী আহমদ, আব্দুর রব, মো. নূরুল ইসলাম, জয়নাল আবেদীন, সিরাজুল ইসলাম, আঃ শুক্কুর মৃধা, মো. বাকী বিল্লাল, মুছা বকাউল, মোহাম্মদ প্রধান, গোলাম মোস্তফা, মো. বিল্লাল, খলিলুর রহমান, আবুল হোসেন, মো. জমির উদ্দিন ও হাবিব উল্লা প্রমুখ।

সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন দাবী-দাওয়া তুলে ধরে লিখিত বক্তব্য পেশ করেন মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ উল্লাহ সরকার। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে সংগ্রামী সালাম ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আপনারা জানেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশের সীমানা অতিক্রম করে ভারত সরকারের সহযোগীতায় প্রশিক্ষণ নিয়ে আমরা হানাদার পাকিস্তানী বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছিলাম। পরবর্তী পর্যায়ে আমলাতান্ত্রিক ও রাজনৈতিক জটিলতার কারণে মুক্তিযোদ্ধারা দেশ পরিচালনায় অংশীদারিত্ব থেকে বঞ্চিত হয়।

নির্বাক মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযোদ্ধাদের পুণর্বাসনের জন্য কতিপয় মুক্তিযোদ্ধার নেতৃত্বে ১৯৭২ সালে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ গঠন করা হয়। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সারা দেশ ব্যাপী তাহাদের কার্যক্রমের আওতায় একনিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়। বাংলাদেশের রাজনৈতিক সরকার পরিবর্তনের দোলাচলে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এর কার্যক্রমের চরাই উৎরাই পরিলক্ষিত হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা ও রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করা হয়।

সাম্প্রতিকালে ২ বৎসর পুর্বে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের মেয়াদকাল শেষ হইলে কেন্দ্রীয়, জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। পরবর্তীতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কার্যক্রমে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে বিচ্ছন্নতা দেখা দেয়। আমরা এর উপলব্ধি ও প্রয়োজনীয়তা মনে করে মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে গতি ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার দৃঢ়প্রত্যয়ে ‘মতলব উত্তর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা স্বাধীনতা পরিষদ’ ব্যানারে মুক্তিযোদ্ধাদের একত্রিত হওয়ার আহŸান জানাচ্ছি।

বাংলার শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পরন্ত বেলায় ও জীবন সায়ান্নে উপস্থিত হয়ে আরও একবার শপথ নিয়ে বাংলার শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পাশে থেকে অতন্দ্র প্রহরীর মতো সদা জাগ্রত থাকবে এই অঙ্গীকার আরেকবার ব্যক্ত করছি। পরিশেষে, সকলের সুস্বাস্থ্য দীর্ঘায়ু কামনা করে সাংবাদিক ভাইদেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে সম্মেলনের যবনিকা টানছি। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

প্রকাশিত : ৩০ জুন ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, রোববার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

 

247 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়