সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে চোখের সম্মুখে অপরাধ হলেও প্রতিবাদ করার কেউ নেই—শেখ রাসেল

শাহরাস্তি থানায় ওপেন হাউজ ডে

0
43

মোঃ কামরুজ্জামান সেন্টু ঃ
বর্তমান সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে চোখের সম্মুখে অপরাধ সংঘঠিত হলেও প্রতিবাদ করার কেউ নেই। কারণ আমরা সাধারণ মানুষ উৎসুক হয়ে ওই অপরাধিদের অপরাধ নিরবে দেখে আনন্দ পাই। তার জ্বলন্ত উদাহরণ সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বরগুণার ঘটনা। অসংখ্য মানুষের সম্মুখে একজন ব্যক্তিকে কুপিয়ে মারা হয়েছে। অথচ আশপাশের মানুষজন উৎসুক ভাবে সেটিকে উপভোগ করেছে। কেউ কেউ আবার সেটিকে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ভাইরাল হতে সহায়তা করেছেন। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে আমরা উৎসুক হয়ে ঘটনাটি উপভোগ না করে তাৎক্ষনিক অপরাধিকে তার কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করলে হয়তো এমন ঘটনার জন্ম হতো না। এ ঘটনা থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। যখনই কোন অপরাধ সংঘঠিত হবে সমাজের মানুষকে একত্রিত হয়ে তা প্রতিহত করতে হবে। শুধু মাত্র আইনশৃৃংখলা বাহিনীর দিকে তাকিয়ে থাকলে কিংবা অপরাধ সংঘটিত হওয়ার সময় ভিডিও করে দেশের শান্তি ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়। আমাদের সচেতন হতে হবে এবং প্রতিটি নাগরিককে দায়িত্ববোধ নিয়ে সমাজের প্রয়োজনে এগিয়ে আসতে হবে। বৃহস্পতিবার বিকেলে শাহরাস্তি থানার উদ্যোগে আয়োজিত ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কচুয়া সার্কেল) মোঃ শেখ রাসেল উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শাহ আলমের সভাপতিত্বে ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ কুতুব উদ্দিন খান লিয়নের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, পৌর কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি পৌর কাউন্সিলর নূর মোহাম্মদ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক আবদুল মান্নান বেপারী, জেলা সিএনজি অটোরিক্সা মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন প্রমুখ।
এছাড়া সভায় পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সভায় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির উপজেলা, পৌরসভা কমিটি ও ওয়ার্ড কমিটির নেতৃবৃন্দ, মসজিদের ইমাম, শিক্ষক, সাংবাদিক ও সুশিল সমাজের ব্যক্তিবর্গ উপস্থিথ ছিলেন।
সভায় সভাপতির বক্তব্যে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শাহ আলম বলেন, আমরা প্রশাসনের লোকজন দিনরাত কাজ করেও অপরাধ কমাতে পারছিনা। কারণ যে হারে সমাজে সামাজিক অবক্ষয় দেখা দিয়েছে সেক্ষেত্রে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রশাসনের সাথে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। তাছাড়া প্রতিটি জনপ্রতিনিধিদের উচিত নিজ এলাকায় সভা সমাবেশ করে জনগনকে সম্পৃক্ত করে অপরাধ নির্মূল ব্যবস্থা গ্রহন করা। দুঃখের বিষয় কোন জনপ্রতিনিধিকে সমাজ কিংবা আগামী প্রজন্মকে রক্ষার্থে ভূমিকা রাখতে দেখি না। আমরা প্রতিটি মানুষ নিজ অবস্থান থেকে সমাজকে সুন্দর ভাবে পরিচালিত করতে এগিয়ে না আসলে অপরাধ নির্মূল করা কঠিন হয়ে পড়বে। তাই সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রশাসনের সহযোগিতায় অপরাধ নির্মূলে এগিয়ে আসা উচিত। তাহলে আমরা একটি সুন্দর সমাজ, এলাকা ও রাষ্ট্র উপহার দিতে পারবো।

প্রকাশিত : ২৭ জুন ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ,  বৃহস্পতিবার

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমকেজেড

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
136 জন পড়েছেন