হাইমচরে নিখোঁজ হওয়া ইমাম উদ্ধারে গুজবের অবসান

0
242

সাহেদ হোসেন দিপু :
হাইমচরের মধ্য ভিঙ্গুলিয়া মসিজদ হতে রাতের আধারে নিখোঁজ হওয়া ইমাম আশ্রাফ আলি কাউছারকে চট্টগ্রাম হাটহাজারি রেলস্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

গত শুক্রবার চাঁদপুর সদর মডেল থানা ও চট্টগ্রাম হাটহাজারি থানা পুলিশের যৌথ সহযোগীতায় তাকে উদ্ধার করা হয়।

http://picasion.com/

নিখোঁজ হওয়া ইমাম তার পিতার কাছ থেকে দাবীকৃত টাকা না পেয়ে নিজেকে অপহৃতকারী সাজাতে চট্টগ্রাম চলে যান।

জানা যায়, চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০নং লক্ষীপুর ইউনিয়নের দোকানঘর এলাকার মাও. তোয়া মিয়ার বড় ছেলে ২নং আলগী উত্তর ইউনিয়নের মধ্য ভিঙ্গুলিয়া আল-আজিজিয়া জামে মসজিদের ইমাম মাও. মো. আশ্রাফ আলি কাউছার গত বুধবার গভীর রাতে নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার পর থকে মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দ ও তার বাবা হাইমচর থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন। তাকে হন্নে হয়ে খোজ করতে থাকেন তার পরিবারের লোকজন।

গত বৃহস্পতিবার ইমামের বাবা তোহা মিয়ার কাছে তার ছেলে কাউছারের মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে ৫০ হাজার টাকা দাবী করা হয়। এসএমএসে বলা হয় দাবীকৃত টাকা পেলে তার ছেলেকে ছেড়ে দেওয়া হবে। তোয়া মিয়া চাঁদপুর মডেল থানাকে বিষয়টি অবগত করলে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ ও চট্টগ্রাম হাটহাজারি থানা পুলিশের সহযোগীতায় তাকে চট্টগ্রাম রেলস্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয়। গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় তোহা মিয়া তার ছেলে আশ্রাফ আলি কাউছারকে হাইমচর থানায় নিয়ে আসেন।

আশ্রাফ আলি সাংবাদিকদের জানান, তিনি একজন ভাল গাড়ি চালক। তিনি মসজিদে ৬ হাজার টাকা বেতনে সংসার চালাতে হিমসীম খাচ্ছেন। তিনি গাড়ি ক্রয় করার জন্য তার বাবার কাছে ৫০ হাজার টাকা ছেয়েছেন। টাকা না দেওয়ায় অপহরন হয়েছে মর্মে নাটক সাজাতে বুধবার রাত অনুমানিক ১২টায় তিনি চাঁদপুর থেকে ঢাকা যান। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রেলস্টেশন গিয়ে তার বাবার মোবাইলে ৫০ হাজার টাকা দাবী করে এসএমএস পাঠান।

উল্লেখ্যযে ইমাম আশ্রাফ আলি কাউছারের নিখোঁজ কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন গুজব ছড়িয়ে পড়ে পুরো উপজেলাসহ পাশ্ববর্তী উপজেলাতেও। আতংকের সৃষ্টি হয় জনমনে। তাকে উদ্ধারের পর হাইমচরের গুজব নাটকের অবসান ঘটেছে। জনমনে ফিরে এসেছে স্বস্তি।

প্রকাশিত : ২৭ জুলাই ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
288 জন পড়েছেন
http://picasion.com/