মুসলিম নারীদের গণধর্ষণ করতে বিজেপি নেত্রীর আহ্বান

0
181

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মহিলা মোর্চা শাখার এক নেত্রীকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দেশটির মুসলিম নারীদের গণধর্ষণ করতে হিন্দু যুবকদের প্রতি আহ্বান জানানোর পর তাকে বহিষ্কার করা হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে উত্তর প্রদেশের রামকুলার বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী সুনিতা সিং গওর বলেন, হিন্দু ভাইদের ১০ জনের একটি গ্রুপ তৈরি করে রাস্তায় প্রকাশ্যে মুসলিম মা ও বোনদের গণধর্ষণ করা উচিত।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

তিনি আরো লিখেন, হিন্দুদের উচিত মুসলিমদের বাড়িতে প্রবেশ করে নারীদের ধর্ষণ করা।

আরও পড়ুন : সদ্যোজাত শিশুকে নিয়ে নার্সদের টিকটক (ভিডিও)

‘মুসলিমদের জন্য শুধুমাত্র একটি সমাধান আছে। সেটি হলো হিন্দু ভাইরা ১০ জনের একটি দল গঠন করবেন এবং রাস্তায় প্রকাশ্যে মুসলিম মা-বোনদের গণধর্ষণ করবেন। পরে বাজারের মাঝে তাদের ঝুলিয়ে রাখবেন, যাতে অন্যরা দেখতে পারেন।’

শুক্রবার সুনিতা সিংয়ের এই ফেসবুক স্ট্যাটাসের স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যাওয়ার তার মুছে ফেলেন তিনি। টুইটারে ভাইরাল হওয়া সেই স্ক্রিনশট নজরে আসে দেশটির বিজেপি মহিলা মোর্চার কেন্দ্রীয় সভাপতি বিজয়া রাহাতকরের।

পরে কেন্দ্রীয় এই নেত্রী বলেন, আমি আশ্বস্ত করছি যে, বিজেপি মহিলা মোর্চা কোনো ধরনের হিংসাত্মক মন্তব্য মেনে নেবে না। টুইটারে স্ক্রিনশট পোস্টকারীকে রাহাতকর বলেন, আপনার টুইটের আগেই ওই ভদ্র মহিলাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

দলীয় নীতিমালা বিরোধী কর্মকাণ্ডের অভিযোগে সুনিতা সিংকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ বিজেপি মহিলা মোর্চা।

প্রকাশিত : ০১ জুলাই ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
160 জন পড়েছেন