শাহরাস্তিতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ : অতঃপর কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা

0
24

স্ট্যাফ রিপোর্টার :
চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তিতে প্রকত ঘটনাকে আড়াল করতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে।

উপজেলার মেহার (দঃ) ইউনিয়নের দক্ষিণ দেবকরা গ্রামের আবু তাহেরের পুত্র প্রবাসী মোঃ আলমগীর হোসেনের কাছ থেকে একই গ্রামের ভূইঁয়া বাড়ির শাহ আলমের মেয়ে জান্নাতুল মাওয়া (১৮) আলমগীর হোসেনের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

দীর্ঘদিন এই দিয়ে তাদের গভীর সম্পর্ক গড়ে উঠে। আলমগীর হোসেনের সাথে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে যান, তাদের এই সম্পর্ক মেয়ের ও ছেলের অভিভাবক মহল অবগত আছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ ও প্রতিকারে সম্পূর্ণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ামুক্ত ভেষজ ঔষধ পেতে যোগাযাগ করুন- হাকীম মিজানুর রহমান : 0162-240650, 01777988889, ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, চাঁদপুর। যোগাযোগ : সকাল দশটা হতে রাত দশটা। নামাজের সময় ব্যতীত। এছাড়াও যৌন সমস্যা, শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), হার্টের ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

এই সূত্র ধরে মেয়ের আত্মীয় স্বজন মেয়েকে বিয়ে দিবেন বলে আলমগীরের নিকট থেকে একাধিক অজুহাত দেখিয়ে ১০/১২ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। আলমগীর বিদেশ থেকে আসলে পুনরায় মেয়ের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে বিভিন্ন তাল বাহানা দেখিয়ে কেটে পড়েন। আলমগীর হোসেন টাকা পাওয়া নিয়ে বিষয়টি স্থানীয় গন্যমান্যদের অবগত করলে স্থানীয় এলাকাবাসী বিষয়টি সমাধানের আশ^াস দেন। এরই মধ্যে গত সোমবার ৭ জুলাই রাত ১১টায় পরিকল্পিতভাবে আলমগীরকে মেয়ের বাড়িতে টাকা দেবে বলে খবর দিয়ে নিয়ে মেয়ের ভাই ফখরুল ইসলাম, চাচা আঃ ছাত্তার, আঃ মান্নান সহ কয়েকজন আলমগীরের উপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। তার শরীরের রক্তাক্ত জখম করেন। বর্তমানে সে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে আশংকাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছে। এই নিয়ে আলমগীরের মা কান্নাস্বরে বলেন, আমার ছেলে থেকে তারা অনেক টাকা হাওলাত নিয়েছে। ওইদিন টাকা দিবে বলে তাদের বাড়িতে ঢেকে নিয়ে আমার ছেলে মেরে ফেলার চেষ্টা করছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সহ উপযুক্ত বিচার চাই।

প্রকাশিত : ১৩ জুলাই ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট-এমআরআর

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
44 জন পড়েছেন