কুষ্টিয়ায় ছেলেধরা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে গণপিটুনি

0
14

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ছেলেধরা সন্দেহে হাসিনা বেগম (৫৫) নামে এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

সোমবার সকালে উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের শিতলাইপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দৌলতপুর মাস্টারপাড়া গ্রামের আশিকুর রহমান রনির বাড়িতে তার মানসিক ভারসাম্যহীন শাশুড়ি চিকিৎসাধীন ছিল।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

সকালে কাউকে কিছু না বলে বাড়ির বাইরে বের হয়ে শিতলাইপাড়ার দিকে গেলে জনগণ তাকে ছেলেধরা মনে করে গণপিটুনি দেয়। এতে হাসিনা বেগমের কপাল ফেটে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। পরে হাসিনা বেগমের জামাই রনি তাকে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে নিয়ে যায়।

দৌলতপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম খান বলেন, ছেলেধরা সন্দেহে এক নারীকে পিটিয়ে আহত করেছে এলাকাবাসী। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। এ ঘটনায় ওই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দিলে মামলা নেয়া হবে।

প্রকাশিত : ২২ জুলাই ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
84 জন পড়েছেন