‘আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে’

0
22

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

http://picasion.com/

জাতীয় গ্রিডের হাই ভোল্টেজ বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন। সামান্য স্পর্শ লাগলেই মৃত্যু হতে পারে। ১৫০ ফুট উঁচু এমনই এক বৈদ্যুতিক টাওয়ারের মাথায় উঠে গেলেন মো. নাসির নামের এক ব্যক্তি।

চূড়ায় উঠে তিনি চিৎকার করে বললেন আজান দিতে। আজান দেয়ার পর নিজে নিজেই আবার নিচে নেমে এসে জ্ঞান হারিয়ে ফেললেন।

ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লা জেলার তিতাস উপজেলায় বৃহস্পতিবারে (২৬ সেপ্টেম্বর)।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌ*ন সমস্যার (যৌ*ন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহ*বাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্য*পাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

নাসির দাবি করলেন তার ওপর নাকি জ্বীনের আছর আছে। তিনি বলেন, ‘আমার সাথে ছয়টি নারী জ্বীন থাকে, চারটি আমাকে অনেক মারধর করে। এদের কথা না শুনলে ব্লেড দিয়ে আমার শরীর কেটে রক্ত খায়। আমাকে মেরে ফেলার জন্য কয়েকবার বিদ্যুতের টাওয়ারে তুলেছে। জ্বীনদের মধ্যে দুটি ভালো, তারা আজান দিতে বললে আজানের ধ্বনি শুনে চারজন চলে যায়। দুজন আমাকে নিরাপদে নামিয়ে দিয়ে যায়।’

নাসিরের বাবা ফোনে বলেন, ‘তার (নাসির) ওপর জ্বীনের আছর আছে। ছোটবেলা থেকেই সে এ রোগে ভুগছে। জ্বীন চলে গেলে সে নিজে নিজেই চলে আসতে পারবে।’

এ বিষয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩-এর ডিজিএম আক্তার হোসেন বলেন, ‘নাসির যখন টাওয়ারের চূড়ায় ওঠেন, তখনো বিদ্যুৎ ছিল। খবর পেয়ে যোগাযোগ করি পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের সঙ্গে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।’

প্রকাশিত : ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
77 জন পড়েছেন
http://picasion.com/