সৌদিতে নিহত সুমনের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ রেমিট্যান্স যোদ্ধা ঐক্য পরিষদ 

১ মাস ৫ দিন পরেও লাশ দেশে আসেনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ

0
261

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি:
সৌদিতে নাজরান এলাকায় নিহত চাঁদপুর ফরিদগঞ্জে মিরপুর গ্রামের সুমন বরকন্দাজ অভাবের পরিবারের পাশে দাড়িয়েছে বাংলাদেশ রেমিট্যান্স যোদ্ধা ঐক্য পরিষদ। গত ১৫ সেপ্টেম্বর সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশ রেমিট্যান্স যোদ্ধা ঐক্য পরিষদের একজন সদস্যের সংবাদের ভিত্তিতে, বাংলাদেশ রেমিটেন্স যোদ্ধা ঐক্যপরিষদের সভাপতি তোফাজ্জল বিন খলিল, সহ-সভাপতি মিঠু এবং কোষাধ্যক্ষ সোনারগাঁ টাইমসের সম্পাদক হাজী মোহাম্মদ শাহজালাল রোববার তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে গিয়ে অল্প বয়সে স্বামী হারা স্ত্রী সুরাইয়া আক্তারের হাতে ২০ হাজার টাকার আর্থিক অনুদান তুলে দেন।

http://picasion.com/

পরিবারের স্বচ্ছতা ফিরাতে পৈত্রিক ভিটে মাটি বিক্রি করে প্রায় ১০ লক্ষ টাকা ঋণের বোঝা নিয়ে মৃত্যুর ৬ মাস পূর্বে সৌদি পাড়ি জমায় সুমন। সৌদির নাজরান শহরে ১৪ আগষ্ট হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন তিনি। এদিকে পরিবারের উপার্জনক্ষম একমাত্র ব্যক্তির এমন অকাল মৃত্যুতে হতাশার পড়ে যায় স্ত্রী সহ পরিবার সদস্যরা।

অকালে স্বামী হারা দরিদ্র সুরাইয়া তার ১১ বছর বয়সী মেয়ে হিমু এবং ৭ বছর বয়সী ছেলে সাফায়াতকে নিয়ে কীভাবে বাকী জীবন পার করবেন সেই দুশ্চিন্তার কোন কুল কিনারা নাই, তার উপর স্বামীর রেখে যাওয়া ঋণের বোঝার চাপ স্ত্রী সুরাইয়া আক্তারকে করেছে দিশেহারা।

এ সময় সুমনের স্ত্রী সুরাইয়া আক্তার বাংলাদেশ রেমিটেন্স যোদ্ধা ঐক্য পরিষদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ১ মাস ৫ দিন হয়ে গেলেও সৌদির মালিক আমার স্বামীর লাশ দেশে পাঠাতে গড়িমুশি করছে। আমার ভাসুর শরীফ বাংলাদেশ কনসুলেট জেদ্দা শাখার ধারে ধারে ঘুরেও কোন সহযোগীতা পাচ্ছে না। নিহত সুমনের পরিবারের আহাজারীতে এলাকার আকাশ বাতাস ভারি হয়ে আসছে। ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হক বলেন, বাংলাদেশ সরকারের সহযোগীতা পেলে পরিবারটি নিহত সুমনের লাশ দ্রæত দেশে ফিরত পাবে। তাই আশা করব, সরকার এ বিষয়ে সহযোগীতার পাশাপাশি এই পরিবারটির পাশে থাকবে। ওয়ার্ড কাউন্সিলর মহসিন জানান, সুমন ব্যক্তি জীবনে খুব একটা ভালো ছেলে ছিলেন। আমরা চাই তার লাশটি দ্রæত বাংলাদেশে পাঠানো হোক।

এমতাবস্থায় নিহত সুমনের স্ত্রী বলেন , মৃত স্বামীর লাশটি শেষবারের মতো দেখার জন্য আমার দুই সন্তান সারাক্ষণ কান্নাকাটি করছে। দ্রæত লাশ ফেরত পেতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। সেই সাথে মালিকের কাছ থেকে পাওনা টাকা আদায়েরও সংশি¬ষ্টদের সহায়তা চেয়েছেন তিনি।
এসময় মৃত সুমনের পরিবারের পাশে থাকার কথা জানান পরিষদের নেতারা এবং সামনের দিনগুলোতেও সুমনের পরিবারকে সহযোগিতা করার কথা বলেন পরিষদের সভাপতি তোফাজ্জল বিন খলিল।

প্রকাশিত : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
367 জন পড়েছেন
http://picasion.com/