সৌদি যাওয়া হয়নি গৃহবধূর, প্রতিদিন ধর্ষণ করতো চারজন

0
630

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

মাগুরা সদর উপজেলার আমুরিয়া গ্রামের এক গৃহবধূকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকায় এনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

http://picasion.com/

এ ঘটনায় শুক্রবার এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে মাগুরা থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত নজরুল ইসলাম (৩০) মাগুরা সদর উপজেলার আমুরিয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌ*ন সমস্যার (যৌ*ন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহ*বাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্য*পাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

মাগুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তার নজরুল ইসলাম এক গৃহবধূকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকার দারুসসালামের একটি বাসায় নিয়ে আটকে রেখে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে।

ওই গৃহবধূর অভিযোগ থেকে জানা যায়, সংসারের অভাবের কারণে অনেকদিন ধরে চাকরির সন্ধান করছিলেন তিনি। এ সুযোগে একই গ্রামের নজরুল ইসলাম তাকে সৌদি আরবে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গেল ১৩ আগস্ট মাগুরা থেকে ঢাকা শহরের দারুসসালাম এলাকার একটি বাসায় নিয়ে যায়।

সেখানে মোকারম আলী, আরজু শেখ ও আরও দুজন মিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাকে আটকে রেখে পালাক্রমে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করতে থাকে। গেল ১২ সেপ্টেম্বর ঢাকার ওই বাসা থেকে পালিয়ে মাগুরা চলে আসেন গৃহবধূ।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে মাগুরা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে পুলিশ শুক্রবার নজরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্য আসামিদেরকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি সিরাজুল ইসলাম।

প্রকাশিত : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
354 জন পড়েছেন
http://picasion.com/