pabna 2

স্ত্রীকে তালাক দিয়ে বন্ধুর বউ নিয়ে উধাও শিক্ষক

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

স্ত্রীকে তালাক দিয়ে বন্ধুর বউকে নিয়ে উধাও হয়েছেন কুষ্টিয়া পলিটেকনিক ইন্সস্টিটিউটের এক শিক্ষক।

১৮ বছরের দাম্পত্য জীবন ভুলে গিয়ে পরকীয়ায় আসক্ত ওই শিক্ষকের এমন কাণ্ড নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

তিন ছেলে সন্তানের জনক ওই শিক্ষক বন্ধুর স্ত্রীর প্রতি পরকীয়ায় আসক্ত হয়ে পড়েন।

Night King Sex Update
নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌ*ন সমস্যার (যৌ*ন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহ*বাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্য*পাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

বন্ধুর স্ত্রীর ২ সন্তান থাকলেও সব মায়া ত্যাগ করে শিক্ষকের সঙ্গে উধাও হয়েছেন তিনি। আলোচিত ওই শিক্ষকের নাম ফারুকুজ্জামান মালিথা।

ইতোমধ্যে পুলিশের হাতে ওই ২ সন্তানের জননী প্রেমিকা আটক হলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন ফারুকুজ্জামান। এদিকে দুই পরিবার ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে উভয় পরিবারের স্বজন ও এলাকাবাসী এগিয়ে এসেছেন।

রোববার ফারুকুজ্জামানের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী মনোয়ারা সুলতানা মনিরা উভয় পরিবারের স্বজন এবং এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে পাবনা প্রেসক্লাবে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

লিখিত বক্তব্যে মনোয়ারা সুলতানা মনিরা বলেন, ২০০১ সালে পাবনা সদর উপজেলার দোগাছি ইউনিয়নের চরকোশাখালী গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে ফারুকুজ্জামান মালিথার সাথে তার বিয়ে হয়। বৈবাহিক জীবনে তাদের তিনটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

মনিরা বলেন, যৌতুকের দাবিতে বিভিন্ন সময়ে স্বামী তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন। এরই মধ্যে তার স্বামী তার স্কুলশিক্ষক বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে পরকিয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। নানা ভাবে এই পথ থেকে ফিরে আসার জন্য স্বামীকে অনুরোধ করলেও তিনি সে অনুরোধ উপেক্ষা করে উল্টো তাকে ঘর থেকে বের করে দেন এবং তাকে তালাক দিয়ে ফারুকুজ্জামান গত ২৬ সেপ্টেম্বর বন্ধুর স্ত্রীকে নিয়ে পালিয়ে যান।

প্রকাশিত : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

300 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন