নাইট ডিউটিতে স্বামী, ঘরের বাইরে জুতা রেখে ধরা খেল স্ত্রীর প্রেমিক

0
846

 

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

রাতের বেলা ঘরে চোর ঢুকে পড়ার সন্দেহে খোঁজ করতেই খাটের নিচ থেকে স্ত্রীর প্রেমিককে পাওয়া যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে। গৃহবধূ ও তার প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, বাড়ির বাইরে চটি জোড়া পড়ে থাকা দেখে সন্দেহ হয় স্বপন সাউয়ের।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) +88 01762240650, +88 01777988889
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

কারণ, সেগুলো তাদের পরিবারের কারো নয়। এর পর স্ত্রীকে ডাকেন তিনি। খোঁজ শুরু হয় ঘরজুড়ে। ডাকা হয় ছোট ভাই তপন সাউয়ের স্ত্রী মৌসুমীকেও।

পেশায় ট্যাক্সিচালক তপন তখন বাড়ির বাইরে। চোর ধরতে নেমে পড়েন মৌসুমীও। আর ঠিক তখনই মৌসুমীর ঘরের খাট থেকে বেরিয়ে আসেন সুভাস দাস। তিনি তপন সাউয়ের বন্ধু। বন্ধুর স্ত্রীর সঙ্গে প্রেমপর্ব চালিয়ে যাচ্ছিলেন সুভাস।

জানা গেছে, সোনারপুরে মালঞ্চে থাকেন পেশায় ক্যাবচালক তপন সাউ। বছরখানেক আগে প্রেম করে বিয়ে করেন মৌসুমীকে। তিনি পেশায় টেলিকলার। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই স্বামীর বন্ধু সুভাস দাসের সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন মৌসুমী।

ঘটনার দিন রাতে গাড়ি নিয়ে বেরিয়েছিলেন তার স্বামী। সেই সুযোগে প্রেমিককে ঘরে ডেকে নিয়েছিলেন মৌসুমী। কিন্তু একটা ভুল করে ফেলেন সুভাস। চটি খুলে ঘরে ঢোকেন। রাতে শৌচাগারে যেতে গিয়ে চটিজোড়া নজরে আসে তপনের ভাই স্বপন সাউয়ের। বাড়িতে চোর ঢুকেছে বলে সন্দেহ হয় তার। খোঁজাখুঁজি শুরু হতেই ছোটভাইয়ের ঘরের খাটের তলা থেকে বেরিয়ে আসে ভাইয়ের বউয়ের প্রেমিক।

হাতেনাতে ধরা পড়ার পর স্বপন সাউ ও তার স্ত্রীর উপরে হামলার অভিযোগ উঠেছে মৌসুমী ও সুভাসের বিরুদ্ধে। তাদের গ্রেফতার করে সোনাপুর পুলিশ। দু’জনকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বারুইপুর আদালতের বিচারক। পুরো ঘটনায় হতবাক মৌসুমীর স্বামী তপন সাউ। বিশ্বাসের এমন দাম যে পাবেন, ভেবেই দিশেহারা তিনি!

ছবি পোস্ট করে বছরে আয় ৬৯ লাখ, সাংবাদিকতা ছেড়ে তিনি এখন মডেল

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পোস্ট করা ছবি বদলে দিয়েছে একজন নারী সাংবাদিকের জীবন। শুধু ছবি পোস্ট করেই সাংবাদিকতা করার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি আয় করছেন তিনি। চাকরি ছেড়ে হয়ে গেছেন ইনস্টা মডেল। আর তারপরই তার হাতে আসতে শুরু করেছে অঢেল অর্থ।

মিয়ামির বাসিন্দা অ্যালেক্সা ডেলানোস ইনস্টাগ্রামে গত এক বছরে ছবি পোস্ট করে আয় করেছেন ৬৯ লাখ টাকা। জানা গেছে, সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করার পর বদলে যায় তার জীবন।

অনলাইনে ছবি পোস্ট করে যে এত টাকা আয় করা যায়, সেটা ধারণাতেই ছিল না অ্যালেক্সার। আয়ের পথ খুলে যেতেই চাকরি ছেড়ে হয়ে গেলেন পুরোদস্তুর ইনস্টা মডেল। যেমন ভাবা তেমন কাজ। ২০১৮ সালের শুরুর দিক থেকেই বয়ফ্রেন্ড অ্যালেখকে সঙ্গে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন ওয়ার্ল্ড ট্যুরে।

চোখ ধাঁধানো লোকেশন থেকে খোলামেলা ছবি পোস্ট করাই এখন অ্যালেক্সার কাজ। ২৩ বছরের অ্যালেক্সার কাছে আছে নিজস্ব জেট প্লেনও। সদ্য একটি দামি গাড়িও কিনেছেন তিনি। এক বছরেরই শুধু অনলাইনে ছবি পোস্ট করে তার আয়ের অঙ্ক প্রায় ৬৯ লাখের বেশি। ভবিষ্যতে আরো বেশি আয়ের পথ খুঁজছেন এই নারী।

প্রকাশিত : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
260 জন পড়েছেন