ক্লিনিকের ছাদে গৃহকর্মীকে সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ

0
1092

 

জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় এক গৃহকর্মীকে (১৯) গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় গতকাল রোববার রাতে নির্যাতিত গৃহকর্মী বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা করেছেন।

মামলায় দাউদখালী গ্রামের আফজাল খানের ছেলে সুমন খান, ছালাম হাওলাদারের ছেলে ইমরান হাওলাদার ও জিয়াম হাওলাদারের ছেলে রাজু হাওলাদারকে আসামি করা হয়েছে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌন সমস্যার (যৌন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহবাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্যপাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দাউদখালী গ্রামের ওই গৃহকর্মী পার্শ্ববর্তী দেবত্র গ্রামের এক বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করেন। আসামিরা প্রায়ই পথে ঘাটে ওই গৃহকর্মীকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে দেবত্র গ্রামের ওই বাড়িতে কাজ করতে যাওয়ার সময় আসামিরা মেয়েটিকে মুখ চেপে একটি ক্লিনিকের ছাদের উপর নিয়ে যায়। সেখানে বখাটে ইমরান হাওলাদার মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। পরে সুমন খান ও রাজু হাওলাদার মেয়েটিকে সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ করে। রাত দেড়টার দিকে মাছ ধরতে যাওয়া এক লোক আসামিদের কথা শুনে সন্দেহ হলে ছাদে গিয়ে টর্চলাইট মারলে আসামিরা পালিয়ে যায়।

মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, গৃহকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরও জানান, মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সোমবার পিরোজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

প্রকাশিত: ১১:৫৩ এএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
230 জন পড়েছেন