মনোহর আলীর ঝুপড়ি ঘরে মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম

0
96

মোঃ জামাল হোসেন :
শাহরাস্তির শোরশাগের মনোহর আলীর ঝুঁপড়ির ঘরে মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর এমপি।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মনোহর আলী তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, অনেক বছর ধরে খুবই কষ্টে আছি। কেউ কখনো খোঁজখবর নেয়নি। ঝড়বৃষ্টি শুরু হলে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ভয়ে ঘরে আতঙ্কিত হয়ে থাকতাম। আপনি (স্থানীয় সংসদ সদস্য) আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। আমারা আল্লাহর কাছে দোয়া করি, আল্লাহ আপনার সহায় হউক।

তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্যও হাত তুলে দোয়া করেন। মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম অন্ধ মনোহর আলীকে আশ্বস্ত করে বলেন, আপনার জন্য তিন শতাংশ জায়গা কিনে একটি বাড়ী করে দেয়া হবে। আপনার দুই মেয়ের বিয়ের ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। যেই পর্যন্ত আপনার বাড়ী না হবে সেই পর্যন্ত আপনাকে বাসা ভাড়া করে দেয়া হবে। সেই বাসায় আপনারা থাকবেন।

এ সময় রফিকুল ইসলাম অন্ধ মনোহর আলীর হাতে নগদ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করেন।

তিনি মনোহর আলীর পরিবারের সাথে কিছু সময় কাটান। মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম স্থানীয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশের আনাছে কানাছে অনেক মনোহর আলী পড়ে আছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দেশের মানুষের দুঃখ-কষ্ট লাঘবের জন্য কাজ করছেন। সেখানে একজন মনোহর আলী স্ত্রী সন্তান নিয়ে এভাবে দুঃখ-কষ্টে থাকবে তা মেনে না যায়না। আমরা তাকে জায়গা কিনে প্রধানমন্ত্রীর উপহার স্ব-রুপ একটি ঘর প্রদান করবো। একই দিন দুপরে হাজীগঞ্জ উপজেলায় শেখ হাসিনার উপহার আশ্রহয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় ‘যার জমি আছে, ঘর নেই’ প্রকল্পে ২৪০জন গৃহহীন পরিবারের মাঝে ঘরের চাবি তুলে দেন।

প্রকাশিত : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর/

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
197 জন পড়েছেন