মাদারীপুরে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩০

0
29

জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

মাদারীপুর সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এতে কয়েকজন রাবার বুলেটবিদ্ধ হয়েছে বলে জানা গেছে।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরে দীর্ঘদিন থেকে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধ চলে আসছে।

নারী-পুরুষের যে কোনোা যৌ*ন সমস্যার (যৌ*ন দুর্বলতা, সন্তান না হওয়া, সহ*বাসে ব্যর্থতা, দ্রুত বীর্য*পাত, মেহ-প্রমেহ) সমাধানে ‘নাইট কিং’ ও ‘নাইট কিং গোল্ড’ কার্যকরী। বাংলাদেশের যে কোনো জেলা বা উপজেলায় কুরিয়ার সার্ভিসযোগে ‘নাইট কিং’ পেতে যোগাযোগ করুন :
হাকীম মিজানুর রহমান
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার, যোগাযোগ করুন : (সকাল ১০টা থেকে রাত ০৮ টা (নামাজের সময় ব্যতীত) 01762240650, 01834880825
এছাড়াও শ্বেতী রোগ, ডায়াবেটিস, অশ্ব (গেজ, পাইলস, ফিস্টুলা), ব্লকেজ, শ্বেতপ্রদর, রক্তপ্রদর ইত্যাদি রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়।

এর মধ্যে একটি গ্রুপ সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী ও স্থানীয় এমপি শাজাহান খান সমর্থিত, অপর গ্রুপটি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম সমর্থিত।

শনিবার সকালে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা কলেজে পাল্টাপাল্টি মিছিল করে। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এ সময় দুই পক্ষের নেতাকর্মীরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

এতে কয়েকজন রাবার বুলেটবিদ্ধসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালসহ স্থানীয় কয়েকটি ক্লিনেকে চিকিৎসা দেয়া হয়। আহতদের মধ্যে সাতজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

প্রকাশিত: ০৪:০০ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ফেসবুকে মন্তব্য করুন
68 জন পড়েছেন