শাহরাস্তিতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অর্ধশতাধিক গাছ কর্তনের অভিযোগ

শাহরাস্তি চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে পূর্বশত্রুতার জের ধরে অর্ধশতাধিক গাছ কর্তনের অভিযোগ উঠেছে উপজেলার মেহের উত্তর ইউনিয়নের বানিয়াছোঁ হাজী বাড়িতে এই ঘটনাটি ঘটে, ঘটনার বিবরণে জানা যায় মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন ও পার্শ্ববর্তী বাড়ির বাবুল হোসেন গংদের সাথে দীর্ঘদিন সম্পত্তিগত বিরোধ চলে আসছে। এরই সূত্র ধরে ২৪ ডিসেম্বর বিকেলে মোশারফ হোসেনের পৈতৃক সম্পত্তির উপর থাকা বিভিন্ন প্রজাতির গাছ গাছালি প্রায় অর্ধশত গাছ পার্শ্ববর্তী বাড়ির মোঃ আবুল হোসেন, মোঃ ইসমাইল হোসেন,ও ইব্রাহিম গং জোরপূর্বক গাছ কেটে নিয়ে যায়, এ বিষয়ে মোশারফ হোসেনের স্ত্রী জানান, আমার স্বামী বাড়িতে থাকেন না আমি ছেলে মেয়ে নিয়ে বাড়িতে একা থাকি আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তির উপরে থাকা বিভিন্ন প্রজাতির গাছ গুলো বাবুল গং কেটে নিয়ে যায় এ নিয়ে বাবুল গংদের জিজ্ঞাসা করতে গেলে তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি ও হুমকি-ধমকি এমনকি প্রাণনাশের হুমকিও দেয়, আমি নিরুপায় হইয়া স্থানীয় ইউপি মেম্বার দেলোয়ার হোসেন ও সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ তাজুল ইসলাম কে বিষয়টি অবগত করিলে তারা স্থানীয় চেয়ারম্যান মনির হোসেনকে গাছ কাটার বিষয়টি অবগত করার পরামর্শ দেন, আমি স্থানীয় চেয়ারম্যান মনির হোসেনকে বিষয়টি সমাধানের স্বার্থে অবগত করিলে চেয়ারম্যান বলেন আপনাদের সম্পত্তি নিয়ে মামলা-মোকদ্দমা বিজ্ঞ আদালতে চলমান আছে, তাই উক্ত জায়গা গাছ লাগানো গাছ কাটা কারো অধিকার থাকে না, তাছাড়া এ বিষয়ে আমরা স্থানীয় ভাবে বহু সালিশ দরবার করেছি, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার বলেন আমি আমার গাছ কাটার সুবিচার স্থানীয় প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করি।

এ বিষয়ে অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসা করলে মোঃ বাবুল হোসেন গং বলেন বলেন আমাদের বিরুদ্ধে গাছ কাটার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, আমি আমার খরিদা ছাফকবলা সম্পত্তির উপর থাকা গাছের ডাল জনসাধারণের স্বার্থে ও রাস্তার উপর গাড়ি চলাচলের, জন্য ছাঁটাই করে দিয়েছি। আমি কাহারো গাছ,কাটিনি এটা আমার খরিদা সম্পত্তি, আমার সাথে উক্ত সম্পত্তি নিয়ে কারো সাথে মামলা-মোকদ্দমা ও বিরোধ নাই।

প্রকাশিত :২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার :

চাঁদপুর রিপোর্ট : এস এস

181 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়