শাহরাস্তিতে বানু-গণি ফাউন্ডেশনের বৃত্তি প্রদান

মোঃ জামাল হোসেন :

শাহরাস্তিতে বানু-গনি ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। স¤প্রতি টামটা দক্ষিণ ইউপি’র কুলসি গ্রামে ওই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এ বৃত্তি প্রদান করা হয়।

ওইদিন মহান বিজয় দিবস ২০১৯ উপলক্ষে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা পর্যায় ৯ম-১০ম শ্রেণীর জন্য বিষয় ভিত্তিক “তরুণ প্রজন্মের সামজিক অবক্ষয়ে মোবাইল ফোনের ভূমিকা” এবং ৭ম-৮ম শ্রেণীর জন্য বিষয় ভিত্তিক “পাঠ্যসূচিতে সৃজনশীল পদ্ধতির সমস্যা ও সম্ভাব্য সমাধান শীর্ষক রচনা প্রতিযোগীতার পুরষ্কার বিতরণী ও দোয়া এবং সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের কুলশি গ্রামে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ফাউন্ডেশনের উদ্যোগতা ডা. মো.সালাহ উদ্দিন, এফসিপিএস, এম.এম.ডিথর সভাপতিত্বে ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাক্তন প্রফেসর ড. মো. আবুল বাশার মিয়ার উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজ প্রাক্তন অধ্যক্ষ মো. নুরুল হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শাহরাস্তি প্রেসক্লাব সভাপতি কাজী হুমায়ুণ কবির, সাধারণ সম্পাদক ও রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি মো. মাসুদ রানা।

এছাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পক্ষে বক্তব্য রাখেন টামটা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক এইচ এম বদিউজ্জামান বদু, কুলশি সপ্রাবি পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আ: হালিম মজুমদার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, টামটা দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জহিরুল ইসলাম ভুঁইয়া মানিক, শাহরাস্তি প্রেসক্লাব ও রিপোর্টাস ইউনিটির সিনিয়ার সহ-সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান ভুঁইয়া, শাহরাস্তি রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বপন কর্মকার মিঠুন, টামটা দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুর রহমান মজুমদার, এক্সজিম ব্যাংকের অফিসার মো.মশিউর রহমান (মানিক)। অনুষ্ঠানের শেষার্ধে বিজয়ীদের হাতে প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিরা প্রশংসাপত্র ও নগদ অর্থ তুলে দেন।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এবার বিজয় দিবস উপলক্ষে ৯ম-১০ম শ্রেণীর গ্রুপ পর্যায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন টামটা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী রহিমা আক্তার এবং ৭ম-৮ম শ্রেণীর গ্রুপ পর্যয় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন একই বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী ফয়েজুননেছা মিথিলা।

এছাড়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানধারিদের মাঝে প্রশংসা পত্র ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বানু-গণি ফাউন্ডেশনের আত্মপ্রকাশ ঘটলো। স্থানীয় এলাকার সকলের সহযোগীতা নিয়ে আগামীদিন এ ফাউন্ডেশন এগিয়ে যাবে।

 50 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন