kachua 7 jan photo copy

কচুয়ায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভবন নির্মাণের অভিযোগ

কচুয়া প্রতিনিধি:

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের হাসিমপুর এলাকায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক ভবন নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, হাসিমপুরের আব্দুল বারেকের ছেলে আবুল বাসার গং আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোরপূর্বক ভবন নির্মাণ করছেন। চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার ৯০নং হারিচাইল মৌজে সি.এস. খতিয়ান নং-৩০, আরএস খতিয়ান নং ৬৩, বিএস খতিয়ান নং ৩৫৪ ও ১০৫ নং ও ৫৪১ নং নামজারী জমা ১৩ শতক জায়গা মনির হোসেন তার মা তাহেরা খাতুনের কাছ থেকে ১৯ অক্টোবর ২০১৭ তারিখে হেবা ঘোষণা ও ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে হেবা ঘোষণা দলিল মূলে ক্রয় সূত্রে মালিক হয়।

এবং ক্রয়ের পর থেকে মনির হোসেন জায়গাটি দখল করে আসছে। আবুল বাসার গং মনির হোসেনের ১৩ শতক জায়গা জোরপূর্বক দখল করে ভবন নির্মানের চেষ্টা করলে মনির হোসেন সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দায়ের করে ভবন নির্মান কাজ স্থগিত রাখে। পরবর্তীতে আবুল বাসার গং পুনরায় বেআইনিভাবে ভবন নির্মান কাজ শুরু করলে মনির হোসেন আবুল বাসারকে প্রধান আসামী করে ৫ জনের বিরুদ্ধে ফোজধারী কার্যবিধি আইনের ১৪৫ ধারায় চাঁদপুরের বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা নং ১১৫৭/২০১৯। আদালত ওই ভূমিতে স্থিতাবস্থা জারী করে। স্থিতাবস্থা থাকা সত্তে¡ও বিবাদী আবুল বাসার গং ভবন নির্মান কাজ চালিয়ে যাওয়ায় পরবর্তীতে বাদী মনির হোসেন ১৮৮ ধারায় প্রতিকার চেয়ে আদালতে আরেকটি অভিযোগ দায়ের করেন। যার কারনে গত ১১ ডিসেম্বর চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট এস এম জাকারিয়া কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ এর কাছে ১১৫৭/২০১৯ এর আরজির এবং প্রতিপক্ষ কতৃক ওই ভূমিতে স্থিতাবস্থা থাকা সত্তে¡ও অনুপ্রবেশ করে ভবন নির্মান কার্যক্রম চালু রাখায় সরজমিনে তদন্তক্রমে আগামী ১ মার্চ ২০২০ তারিখের পূর্বে প্রতিবেদন প্রেরণ করার নির্দেশ প্রদান করেন।

এব্যাপারে মনির হোসেন জানান, বিবাদী আবুল বাসার গং ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে তার জায়গা দখল করে সেখানে ভবন নির্মানের চেষ্টা করলে তিনি আইনের সহায়তা নেন। এবং আবুল বাসার গং আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তার ভূমিতে ভবন নির্মান কাজ করে যাচ্ছে। তিনি এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

 

এব্যাপারে বিবাদী আবুল বাসারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি।

মনির হোসেন জায়গা সম্পত্তি হারিয়ে পরিবার নিয়ে এখন মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

 37 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন