20200106 134553 copy

হাইমচর উপজেলার ইটভাটার মালিকগণের সাথে চাঁদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের মতবিনিময়

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

আজ ০৬ জানুয়ারি ২০২০ তারিখ সোমবার পরিবেশ অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কার্যালয়ের উদ্যোগে চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার ইটভাটার মালিকগণের সাথে একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিবেশ অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক জনাব এ, এইচ, এম, রাসেদ।

উপপরিচালক জনাব এ, এইচ, এম, রাসেদ সভায় “ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন, ২০১৯” মোতাবেক ইটভাটা পরিচালনার জন্য ইটভাটার মালিকগণকে অনুরোধ করেন।

এছাড়া আইন অনুযায়ী নিষিদ্ধ এলাকায় অবস্থিত ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধকরণসহ আধুনিক প্রযুক্তিতে রূপান্তর করা হয়নি এমন ইটভাটাকে আইন অনুযায়ী ইটভাটার অবস্থান গ্রহণযোগ্য থাকলে জিগজ্যাগে রূপান্তর করার জন্য বলা হয়।

এছাড়া সরকারী কাজে পর্যায়ক্রমে বøক ইট ব্যবহারের বাধ্যতামূলক করার বিষয়টি সভায় অবহিত করা হয়। মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন মেসার্স মাতব্বর ব্রিকসের স্বত্বাধিকারী জনাব মোঃ নান্টু মিয়া, মেসার্স ভাইয়া ব্রিকসের ম্যানেজার জনাব মিজানুর রহমানসহ অন্যান্যরা।

তাঁরা ইটভাটা পরিচালনায় পরিবেশ অধিদপ্তরের সহায়তা কামনা করেন। সভায় বিস্তারিত আলোচনা শেষে নি¤œবর্ণিত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

“ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন, ২০১৯” মোতাবেক সকল ইটভাটা পরিচালনা করতে হবে।
আইন অনুযায়ী নিষিদ্ধ এলাকায় অবস্থিত ইটভাটার কার্যক্রম সম্পূর্ণরুপে বন্ধ রাখতে হবে।

যে সকল ইটভাটার অনুকূলে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র রয়েছে, সেসকল ইটভাটার অনুকূলে প্রদত্ত ছাড়পত্রের মেয়াদ উর্ত্তীণের ০১ (এক) মাস পূর্বে নবায়নের আবেদন দাখিল করতে হবে।

সকল ইটভাটা পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র এবং জেলা প্রশাসনের ইট পোড়ানো লাইসেন্স গ্রহণপূর্বক পরিচালনা করতে হবে।
১২০ ফুট উচ্চতার চিমনীর যে সকল ইটভাটা রয়েছে তাঁদের ইটভাটার অবস্থান যদি “ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন, ২০১৯” মোতাবেক গ্রহণযোগ্য অবস্থানে থাকে তবে তাঁরা জিগজ্যাগ পদ্ধতিতে ইটভাটাকে রূপান্তরপূর্বক পরিচালনা করবেন। অন্যথায় ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ রাখতে হবে।

ইটভাটায় মাটির ব্যবহারসহ অন্যান্য বিষয়সমূহ আইন অনুযায়ী পরিচালনা করতে হবে।

ভবিষ্যতেও পরিবেশ অধিদপ্তর, চাঁদপুর জেলা কার্যালয়ের উদ্যোগে ইটভাটার মালিকগণের সাথে এ ধরণের মতবিনিময় সভা আয়োজন অব্যাহত থাকবে।

209 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন