হাজীগঞ্জে বিধবাকে ধর্ষণের ঘটনায় তোলপাড়

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

হাজীগঞ্জে এক বিধবার আন্তঃসত্ত্বার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এলাকায় তিনজন ধর্ষকের নাম নিয়ে গুঞ্জন উঠে। কিন্তু মামলায় একজনকে আসামী করায় এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া শোনা যাচ্ছে।

ঘটনাটি উপজেলার ৮নং হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের পশ্চিম হাটিলা গ্রামের চকিদার বাড়িতে ঘটে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার লোকজন জানান, বিধবা এলাকার তিনজনের নাম বলেছে। আব্দুল হালিম ছাড়াও একই বাড়ির মিজান আখন্দ ও মহিন আখন্দের নাম বলেছে। কিন্তু মামলায় কী কারণে তাদের আসামী করা হয়নি বুঝতে পারছি না।

gif maker

হয়তো মিজান আখন্দ প্রভাবশালী বলে তার নাম মামলায় আন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। কারণ মিজান আখন্দ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। ঘটনার পর থেকে মিজান ও মহিন গা ঢাকা দিয়েছে।

গ্রাম পুলিশ মনির হোসেন বলেন, বিধবা আত্মহত্যার হুমকি দেয়ায় তাকে থানায় নিয়ে আসি। বিধবা এলাকায় তিনজনের নামই বলেছে।

এদিকে আবদুল হালিম (৫০) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে বিধবার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

বিধবা নারী অভিযোগে উল্লেখ করেন, চার মাস ধরে তিনি অন্তঃসত্ত্বা। প্রায় ছয় মাস পূর্বে তার স্বামী মারা যায়। তিন সন্তান রয়েছে। বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একই গ্রামের আব্দুল হালিম তার সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসেন রনি গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে।

প্রকাশিত :৩০ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার :

চাঁদপুর রিপোর্ট : এস এস

189 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়