ফরিদগঞ্জে সম্পত্তি রক্ষার্থে দোকানে বসবাস করছে অসহায় পরিবার!

 

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :

পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষার স্বার্থে দীর্ঘদিন থেকে দোকান ঘরেই বসবাস করে আসছে একটি অসহায় পরিবার। প্রতিপক্ষের দেয়া একাধিক মামলা হামলায় জর্জরিত এ পরিবারটি সুবিচার পেতে বিভিন্ন মহলে ধর্ণা দিয়েও প্রভাবশালী প্রতিপক্ষের ক্ষমতার দাপটে প্রতিকার পাচ্ছে না।

ফরিদগঞ্জের ১৪নং ইউনিয়নের চরবড়ালী গ্রামের মুকবুল আহাম্মেদের সাথে পৈত্রিক সম্পত্তির ভোগদখলকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের অজিউল্লা কালুর সাথে বিরোধ দেখা দেয়। এ বিরোধ নিয়ে দু’ পক্ষের মধ্যেই পরস্পর বিরোধী মামলা-হামলার ঘটনা ঘটেছে। এদের বিরোধ নিষ্পত্তি করতে স্থানীয়ভাবে বৈঠক হলেও প্রতিপক্ষের ক্ষমতার দাপটে কোনো সুরাহা না হওয়ায় অসহায় মুকবুল আহাম্মেদের পরিবারের মধ্যে বর্তমানে অজানা আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার পাশেই একটি দোকান ঘরে সুজনের বাবা ও মা প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র নিয়ে বসবাস করছে। দোকানের চারিদেকে টিনের বেড়া রয়েছে। দোকান ঘরের পাশেই একটি পাকা ঘর ও ব্যবহারের জন্যে রয়েছে একটি টয়লেট। যে কোনো মুহূর্তে প্রতিপক্ষের লোকজন দোকান ঘর দখল করতে পারে এমন আশঙ্কায় অসহায় মুকবুলের পরিবারটি নিজের বাড়িতে বসবাস না করে এখন দোকানকেই ঘর বানিয়ে সেখানে রাত কাটাতে বাধ্য হয়েছে বলে এ পরিবারটি দাবী করছে।

এ বিষয়ে বক্তব্য নিতে অজিউল্লা কালুর সাথে কথা বলতে চাইলে তার মেয়ে নূরজাহান মুঠোফোনে জানায়, মুকবুল আহাম্মেদ ও তার ছেলে সুজন আমার পরিবারের বিরুদ্ধে মোট ৭টি মামলা দিয়েছে। তিনটি মামলার রায় আমাদের পক্ষে দেয়া হয়েছে।

এ নিয়ে মুকবুল আহাম্মেদ ও তার ছেলে সুজন জানায়, আমাদের পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে অজিউল্লা কালু এবং তার ২ মেয়ে বাদী হয়ে নারী নির্যাতন মামলা সহ মোট ৮টি মামলা দিয়েছে। শান্তির স্বার্থে দুই পক্ষের বিরোধ মীমাংসার উদ্যোগ নেয়া হলেও অজিউল্লার পরিবারের সদস্যরা মীমাংসায় না এসে আমাদের বিরুদ্ধে সাজানো ও মিথ্যা মামলা দিয়েই আসছে।

প্রকাশিত : ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার :

চাঁদপুর রিপোর্ট : এমআরআর

157 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়