মিজানুর রহমান রানার ‘একাত্তরের মৃত্যুকুসুম’ আসছে বইমেলায় 

 

চাঁদপুর রিপোর্ট ডেস্ক :
মিজানুর রহমান রানা। একজন কবি ও ঔপন্যাসিক। তিনি ২০১২ সালে প্রকাশ করেছে উপন্যাস ‘নীল জোছনা’। এরপরই লেখা শুরু করেছেন ‘একাত্তরের মৃত্যুকুসুম’। এই উপন্যাসটি দীর্ঘ আট বছরের সাধনার ফসল।

দীর্ঘ আট বছর ধরে মুক্তিযুদ্ধের উপর ভিত্তি করে এই উপন্যাসটি রচনা করেছেন তিনি। মৃত্যুকুসুম একটি ফুলের নাম। যে ফুলটি ১৫ বছরে একবার ফোটে। যা দেখতে ভিড় করে হাজার হাজার মানুষ। মজার বিষয় হচ্ছে, এ ফুলের বৈজ্ঞানিক নাম ‘অ্যামরফোফ্যালাস টাইটানাম’। বিশেষ কারণে একে ‘স্টিংক’ বলা হয়। কারণ ফুলটি ফোটার পরে যে গন্ধ ছড়ায়, তা পচা মাংস বা মৃতদেহের গন্ধের মতো।

সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী কাহিনী। বাস্তবতা আর কল্পনার মিশেল। চাঁদপুরসহ সারাদেশের মুক্তিযুদ্ধের কিছু খন্ডচিত্র। এ উপন্যাসে এমন কিছু চরিত্র রয়েছে, যা বাস্তবের সাথে সম্পর্কযুক্ত। এর মধ্যে রয়েছে ইরফান, ঋষি অনির্বাণ, অপর্ণা। অন্যদিকে রয়েছে রাজাকার বাচ্চু চরিত্র। এ চরিত্রগুলো আমাদের সমাজেরই অংশ তবে এরা সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকে।

রয়েছে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রায়ন। এই উপন্যাসে বঙ্গবন্ধুর জীবনের নানা ঘাত-প্রতিঘাত, দেশাত্মবোধ এবং সর্বোপরি দেশপ্রেমের কাহিনী ফুটে উঠবে। এছাড়াও সর্বশেষ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক বীরাঙ্গনাদেরকে সম্মনানার কাহিনী বর্ণিত হয়েছে, যা বাস্তবিকই ঘটেছে।

বইটির প্রকাশক- বিন আরফান। প্রকাশনায় সাহিত্যরস প্রকাশনী।

crops flower
চিত্র : মৃত্যুকুসুম ফুল
269 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন