আজ চাঁদপুরের হাকীম এমএম শাহাদাৎ হোসাইন পাটওয়ারীর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী

হাকীম মো. সিদ্দিকুর রহমান প্রামানিক :

চাঁদপুর ইউনানী তিব্বীয়া (মেডিক্যাল) কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ লেখক চিকিৎসক ও গবেষক মরহুম হাকীম এম এম শাহাদাৎ হোসাইন পাটওয়ারীর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

আজ সেই ৯ মার্চ আজকের এই দিনে বাংলাদেশের স্বনামধ্যন্য ব্যক্তিত্ব ইউনানী চিকিৎসা বিজ্ঞানের উজ্জল নক্ষত্র চাঁদপুরের কৃতী সন্তান বিশিষ্ট লেখক চিকিৎসক ও গবেষক হাকীম এম এম শাহাদাৎ হোসেন পাটওয়ারীর ৪র্থ মৃত্যুবাষিকী।

‌হাজার মানুষের মা‌ঝে খু‌ঁজি কোথায় পাব আপনা‌কে, কেন জা‌নি ম‌নে হয় আপনার স্পর্শ যেন আমার চার পা‌শে‌ স্মৃ‌তি হ‌য়ে কাঁদায় ।

চাঁদপুর ইউনানি তিব্বীয়া কলেজের অধ্যক্ষ ও বাংলা‌দেশ বোর্ড অব ইউনানী এন্ড আয়ুর্বে‌দিক সিস‌টেমস অব মে‌ডি‌সিন এর সম্মা‌নিত সদস্য হাকীম এম এম শাহাদাত পাটয়ারী।

দিনটি ছিল ০৯/০৩/২০১৬ খ্রিস্টাব্দ। ওইদিন হারিয়ে ফেলেছি আপনা‌কে,
কিন্তু জা‌নেন কি অদ্ভুত আপনা‌কে হারানোর পর

আমি নিজেকে প্রশ্ন করি,

আপনার মত শিক্ষাগুরু আমার জীব‌নে আর কখ‌নো পাবো?

রা‌ত ১১:২০ মিনিট।

আপনার সা‌থে কথা হ‌চ্ছিল। পা‌শে আপনার বড় মে‌য়ে ব‌সে ছিল, রা‌তের খাবার শেষ ক‌রে বললেন, সি‌দ্দিক। দেখতো আমা‌কে দে‌খে কি রোগী ম‌নে হয়?

ডাক্তার আমা‌কে হাসপাতা‌লে রাখ‌তে চায়,‌ দেখ আমা‌কে দে‌খে এত দূর্বল মনে হয় , দেখ‌বে অা‌মি কাল‌কে কলে‌জে গি‌য়ে অ‌নেক কাজ করব , এখন যাও সকাল সকাল অ‌নেক কাজ আছে।  সাম‌নে পরীক্ষা আছে।

আমি বললাম, জি স্যার । এরপর রত ০১ঃ১৫ মিনিটে ফোন এলো। সাথে কান্নার শব্দ। ‌বিশ্বাস কর‌তে পার‌ছিলাম না আপ‌নি দুনিয়াতে ‌নেই। যা শুধু ক্ষীণ সময়‌রে জন্য য‌দি জানতাম , এই কথাই শেষ কথা। তাহ‌লে অনন্ত কাল আপনার সা‌থে কথা ব‌লেই যেতাম স্যার!

আকাশকে চমকে দেয় …
আবার নিমিষেই হারিয়ে যায় …
যেমন আপনার হারিয়ে যাওয়া টা আমার জীবন থেকে …

শুধু একবার না হাজার বার আপনা‌কে আমার কর্মজীব‌নের পরামর্শদাতা শিক্ষাগুরু হি‌সে‌বে চে‌য়ে‌ছি।

হয়তো বুঝতে পে‌রে‌ছি‌লেন আপ‌নি। আর বুঝেও বা লাভ কি? আপ‌নি তো না ফেরার দে‌শে চ‌লে গে‌লেন স্যার।

আল্লাহ জা‌নেন আমি কতটা কতটা কষ্ট পে‌য়ে‌ছি। দেখ‌তে দেখ‌তে একটি বছর পার হ‌য়ে গেল ।
ক‌লে‌জের প্র‌বেশ কর‌তেই আপনার টে‌বি‌লের দি‌কে চোখ চ‌লে যায় আর আপনার কথা ম‌নে প‌ড়ে , জীব‌নে অ‌নেক মানু‌ষের সা‌থে দেখা হ‌বে কিন্তু আপনার মত কাউকে পাব‌ কি না।

আল্লাহ আপনাকে জান্নাতবা‌সী হি‌সে‌বে কবুল করুক। আমিন।

লেখক : হাকীম মোঃ সিদ্দিকুর রহমান প্রামানিক, প্রভাষক, চাঁদপুর ইউনানী তিব্বীয়া (মেডিকেল) কলেজ

278 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন