করোনা ওয়ার্ডে শিশুর মৃত্যু, লাশ ফেলেই পালালেন স্বজনরা!

 

নিউজ ডেস্ক :
যশোর জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন (করোনা) ওয়ার্ডে ভর্তি ১২ বছরের এক মেয়ে শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৩০ মার্চ) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে তার মৃত্য হয়।

রোববার (২৯ মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল। হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও সিভিল সার্জন তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। তবে টেলিফোনের তথ্যের ওপর ভিত্তি করে মেয়েটির নমুনা পাঠাতে নিষেধ করেছে আইইডিসিআর। এদিকে মেয়েটির লাশ ফেলে পালিয়েন তার স্বজনরা।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও আরিফ আহমেদ জানান, গতকাল রোববার বিকেল ৫টার দিকে যশোর সদর উপজেলার এনায়েতপুর গ্রামের ঠিকানা দিয়ে এক ব্যক্তি মেয়েটিকে হাসপাতালে ভর্তি করে। মেয়েটির জ্বর, সর্দি, কাশি থাকায় তাকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এরপর আজ ভোরে তার মৃত্যু হয়।

gif maker

তিনি আরো বলেন, মেয়েটির লক্ষণ নিয়ে আইইডিসিআরের সঙ্গে ফোনে কথা বলা হয়েছে। তারা জানিয়েছে, মেয়েটির করোনা আক্রান্তের সব লক্ষণ নেই। ফলে তার নমুনা পাঠানোর প্রয়োজন নেই।

সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, মেয়েটিকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। সেখানে আজ ভোরে সে মারা যায়। তার বিদ্যমান লক্ষণ সম্পর্কে টেলিফোনে আইইডিসিআরকে জানানো হয়েছে। তারা নমুনা না পাঠানোর জন্য বলা হয়েছে।

এদিকে, মেয়েটিকে যে লোকটি হাসপাতালে ভর্তি করেছিল তিনি তার নাম ঠিকানা, মোবাইল নম্বর না দিয়ে পালিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। তবে মেয়েটির স্বজনদের খোঁজ করে লাশ হস্তান্তর করা হবে, আর না পাওয়া গেলে সরকারিভাবে তার দাফন সম্পন্ন করা হবে।

250 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়