মতলব উত্তরে চাঞ্চল্যকর ইজিবাইক চালক হত্যা মামলা : আটক ২

সফিকুল ইসলাম রানা, মতলব উত্তর করেসপন্ডেন্ট :

মতলব উত্তরে আলোচিত ইজিবাইজ চালক হত্যা মামলার দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে একজনকে ঢাকার যাত্রাবাড়ি ও অন্যজনকে নারায়গঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন ইন্দুরিয়া গ্রামের নূরুল ইসলামের ছেলে আরিফ (৩৫) ও শহিদ উল্লার ছেলে সবুজ (২৫)। পরে পুলিশের কাছে দেয়া জবানবন্দিতে খুনের ঘটনা স্বীকার করে আসামীরা।

গত ১৩ মার্চ দুপুর ইব্রাহিমের বস্তা বন্দি লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। সে উপজেলার দক্ষিণ ইসলামাবাদ গ্রামের আবুল পাটোয়ারীর ছেলে।

সহকারি পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) আহসান হাবিব সাংবাদিকদের বলেন, এটি একটি নৃশংস হত্যাকান্ড। ইব্রাহিম, আরিফ ও সবুজ প্রায় সময়ই সংঘবন্ধ হয়ে মাদক সেবন করতো ও জুয়া খেলতো।

গত ৯ মার্চ ইব্রাহিমকে আরিফ মুঠোফোনে কল করে নিয়ে যায়। ডেকে এনে ইব্রাহিমের কাছে থাকা ইজি বাইক বিক্রির ১ লাখ টাকা নিয়ে যায় তারা। প্রথমে তাকে শাসরুদ্ধ করে হত্যা করে এবং পরে দেশীয় ছুরি দিয়ে তার পেট ও গলা কেটে ফেলে। এর আগে এনার্জি ড্রিংক এর সাথে ওষুধ খাইয়ে ইব্রাহিমকে অজ্ঞান করে ফেলে।

এ ঘটনার পর থেকে আরিফ ও সবুজ পলাতক থাকায় তাদেরকে সন্দেহ করে ইব্রাহিমের স্বজনেরা। পরে মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে তাদের গেফতার করা হয়।

মতলব উত্তর থানার ওসি মো. নাসির উদ্দিন মৃধা বলেন, লাশ উদ্ধার করার পর থেকেই জড়িতদের গ্রেফতার করার চেষ্টা করি। একজনকে ঢাকার যাত্রাবাড়ি ও অন্যজনকে নারায়গঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে ৫৫ হাজার টাকাসহ গ্রেফতার করেছি।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নিলুফা বেগম (৩৯) বাদী হয়ে ৩০২, ২০১ (৩৪) ধারায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আটকের পর আসামীরা ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে খুনের ঘটনা স্বীকারোক্তিমূলক বিবরণ দেয় ও হত্যা করে টাকা নিয়ে যায় বলে স্বীকার করেছে। রোববার তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

152 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়