priyo shomoy arrest

রাজশাহীতে ছিনতাইয়ের অভিযোগে পুলিশসহ গ্রেফতার ৪

জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী:

রাজশাহীতে ছিনতাইয়ের অভিযোগে এক পুলিশ সদস্য ও তিন কারারক্ষীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারের পর নগরীর রাজপাড়া থানায় করা মামলায় রোববার (১৫ মার্চ) বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার ভায়াট এলাকার সিদ্দিক মোল্লার ছেলে ও রাজশাহী নগর পুলিশের রিজার্ভ ফোর্সের সদস্য সেলিম হোসেন (২২), বগুড়ার গাবতলী উপজেলার রহিমাপাড়া এলাকার অমল চন্দ্রের ছেলে কারারক্ষী অভিমন্যু (২৬), সোনাতলার তেকানী এলাকার আব্দুল জলিল আকনের ছেলে কারারক্ষী তোফায়েল (২৫) এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গার মৃত খাইরুল ইসলামের ছেলে কারারক্ষী রবিউল আউয়াল রুবেল (২৩)।

gif maker

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে নগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান জানান, শনিবার (১৪ মার্চ) রাত পৌনে ৮টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী খুরশিদ জাহান তার আত্মীয় জনিকে সঙ্গে নিয়ে নগরীর টি-বাঁধ থেকে পায়ে হেঁটে ফিরছিলেন। এ সময় শিমলা পার্কের পাশে চারজন ব্যক্তি নিজেদের রাজপাড়া থানার পুলিশ সদস্য পরিচয় দিয়ে খুরশিদ ও জনিকে আটক করে তল্লাশি করেন। এরপর তাদেরকে আটকে রেখে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন।

তিনি আরও জানান, চাঁদা না দিলে মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেন। কিন্তু তারা টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাদের দুজনকে টেনে-হিঁচড়ে বাঁধে নিয়ে যান এবং মারধর করেন। এক পর্যায়ে তারা খুরশিদ ও জনির কাছ থেকে দুই হাজার টাকা কেড়ে নেন। এ ঘটনার পরপরই খুরশিদ জাহান ও জনি রাজপাড়া থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

সঙ্গে সঙ্গে রাজপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় খুরশিদ তাদের শনাক্ত করলে এক পুলিশ ও দুই কারারক্ষীকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত আরেক কারারক্ষীকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এই কাণ্ডে নিজেদের সম্পৃক্ততার দায় স্বীকার করেছেন অভিযুক্তরা। পরে তাদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

166 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন