chandpur sadar hospital

করোনা সন্দেহে চাঁদপুরে আইসোলেশনে নতুন ১ জনসহ মোট ৬ রোগী ভর্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক :

করোনা আক্রান্ত সন্দেহে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে (২৬) বছর বয়সী আরো এক নতুন রোগীকে ভর্তি করা হয়েছে।

১১ এপ্রিল শনিবার দুপুরে তাকে ওই ওয়ার্ডে ভর্তি করানো হয়।

জানা যায়, অসুস্থ যুবক চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। সে ঢাকা সাভার থেকে এসেছেন বলে জানা গেছে।

তার স্বজনরা জানায় ওই গত কয়েকদিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি গলা ব্যাথা ও শ্বাসকষ্ট সহ করোনা উপসর্গজনিত রোগে ভোগছিলেন।

শনিবার দুপুরে তার স্বজনরা তাকে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালের আলাদা ভবনের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি দেন।

/
এ নিয়ে পূর্বের ৫ জনসহ মোট ৬ জন হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে দু,জন রোগীর রির্পোট নেগেটিভ হওয়ায় তাদের দু,জনকে আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে ছুটি দেয়া হয়েছে। বাকি ৪ জন বর্তমানে ওই ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এদিকে অসুস্থদের হাসপাতালে নিয়ে আসা স্বজন ও হাসপাতালের যে ক’জন কর্মচারী তাদেরকে চিকিৎসাসেবা দিতে গিয়ে সংস্পর্শ করেছে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাক্তার আসিবুল আহসান চৌধুরী চাঁদপুর রিপোর্টকে জানান, শনিবার ভর্তি হওয়া যুবক এবং পূর্বের ভর্তিকৃত রোগীরা জ্বর, সর্দি কাশি এবং শ্বাসকষ্টজনিত রোগে ভোগছিলেন। স্বজনরা তাদের চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে আমরা তাদের প্রত্যেককে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আইসোলিশনে ভর্তি দিয়েছি। আমরা ওইসব রোগী এবং নতুন যে রোগী ভর্তি হয়েছে তাদেন নমুনা সংগ্রহ করে বাংলাদেশ রোগতত্ত্ব ও গবেষণা (আইইডিসিআর) কেন্দ্রে পাঠাবো। সেখান থেকে তার পরীক্ষার রির্পোট পাঠালে নিশ্চিত হওয়া যাবে সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা। তবে এদের মধ্যে দু’জন রোগীর পরীক্ষার রির্পোট নেগেটিভ হওয়ায় তাদের দু’জনকে আইসোলেশন থেকে রিলিজ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ওইসব রোগীর স্বজন এবং হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে যারা রোগীকে স্পর্শ করেছে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছি। বর্তমানে হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৪ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে।

101 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন