civil serjon office chandpur

চাঁদপুরে আরো ৩ জনের নমুনা সংগ্রহ : পূর্বের ১৪জনের রিপোর্ট আসেনি

বিশেষ প্রতিবেদক :

করোনা টেস্টের জন্য চাঁদপুরে সন্দেহভাজন আরো ৩জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে রোববার। এদের মধ্যে শাহরাস্তির ২জন ও ফরিদগঞ্জের ১জন রয়েছেন।

এর আগে শনিবাার মতলব উত্তর উপজেলার ২জন ও হাইমচর উপজেলার ২জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। আর গত বৃহস্পতিবার চাঁদপুরের ৫টি উপজেলার (চাঁদপুর সদর, হাইমচর, মতলব দক্ষিণ, ফরিদগঞ্জ ও হাজীগঞ্জ) ১০জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল।

এ নিয়ে গত ৪ দিনে চাঁদপুর জেলার ১৭জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলো। কিন্তু কারো রিপোর্ট এখনো প্রকাশ হয়নি। তারও আগে মতলব উত্তরের একজন ও মানিকগঞ্জ থেকে আসা এক তরুণের নমুনা টেস্ট করে তাদের শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

/শনিবার সংগৃহীত ৪জনের নমুনা রোববার সকালে কুমিল্লা হয়ে ঢাকার আইইডিসিআর-এ পাঠানো হয়েছে। রোববার সংগৃহীত ৩ জনের নমুনা সোমবার কুমিল্লা হয়ে ঢাকা পাঠানো হবে। তবে চাঁদপুর জেলা সদর হাসপাতালে এখনো নমুনা সংগ্রহ শুরু হয়নি।

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালের আরএমও ও করোনা বিষয়ক ফোকালপার্সন ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল রোববার রাতে জানান, সাসপেক্টেড রোগী না পাওয়ায় তারা এখনো করোনা টেস্টের নমুনা সংগ্রহ শুরু করতে পারেননি।

জ্বর/সর্দি, কাশি, গলাব্যাথার সাথে শ্বাসকষ্ট থাকলে করোনা টেস্ট করা জরুরী বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি জানান, করোনার আতঙ্কে এখন হাসপাতালে রোগী অনেক কমে গেছে। তিনি আরো জানান, চাঁদপুর সদর হাসপাতালের আউটডোরে চিকিৎসকদের চেম্বার এখন শুক্রবার বাদে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

গত বৃহস্পতিবার চাঁদপুর জেলার ৫টি উপজেলা থেকে ১০জনের নমুনা সংগ্রহ করার মধ্য দিয়ে চাঁদপুরে এই কার্যক্রম শুরু হয়। এ নিয়ে তিন দফায় ১৭জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলো। কিন্তু ১জনেরও রিপোর্ট আসেনি রোববার রাত পর্যন্ত।

চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডা. মোঃ সাখাওয়াত উল্লাহ রোববার রাতে চাঁদপুর রিপোর্টকে জানান, রোববার শাহরাস্তি থেকে ২জন ও ফরিদগঞ্জ থেকে ১জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

সোমবার সকালে এসব নমুনা কুমিল্লার সিভিল সার্জন অফিস হয়ে ঢাকা পাঠানো হবে। তিনি আরো জানান, চাঁদপুর থেকে দু’ফায় পাঠানো আগের ১৪জনের নমুনা টেস্টের রিপোর্ট এখনো আসেনি।

এদিকে সন্দেহভাজন রোগী/ব্যক্তির করোনা টেস্টের নমুনা (সেম্পল) সংগ্রহের জন্য প্রস্তুত চাঁদপুরের ৮টি সরকারি হাসপাতাল। হাসপাতালগুলোর মধ্যে রয়েছে জেলা সদরে অবস্থিত ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতাল এবং জেলা সদরের বাইরে অবস্থিত ৭টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। এর বাইরে চাঁদপুর সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়েও এই নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা রয়েছে।

108 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন