sangorsha

চান্দ্রায় ক্রয়কৃত জমি ভরাটে বাধা : চাঁদা দাবি করে হামলায় কলেজছাত্রসহ আহত ৪

স্টাফ রির্পোটার :

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নে ক্রয়কৃত জমি ভরাট করতে গেলে চাঁদা দাবি করে প্রতিপক্ষের হামলায় কলেজ ছাত্রসহ একই পরিবারের ৪ জনকে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

২৬ এপ্রিল শনিবার সকালে ওই ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডস্থ দক্ষিনা বালিয়া গ্রামের খান বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, ওই বাড়ির মৃত অহিদুর রহমান খানের ছেলে সাদেকুর রহমান খান (২০), তাজুল ইসলাম খান (৩৫), নুজরুল ইসলাম খান (২৫), রফিকুল ইসলাম খান (৩০)।

এদের মধ্যে সাদেকুর রহমান চাঁদপুর পুরান বাজার ডিগ্রি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র এবং সে এবার এইচ এসসি পরাক্ষার্থী। আহতদের মধ্যে তার অবস্থা বেশি গুরুতর বলে জানা গেছে।

add all nk lastআহতের স্বজনরা জানায়, মৃত অহিদুর রহমানের ছেলে কয়েক বছর পূর্বে স্থানীয় সাবেক ওয়ার্ড মেম্বারের কাছে কয়েক শতাংস জমি ক্রয় করেন।

দীর্ঘদিন পূর্বে তিনি তার ওই জমি ভরাট করতে গেলে একই এলাকার ছলেমান ভূঁইয়ারা তাতে বাঁধা প্রদান করলে এটি স্থানীয় ভাবে মিমাংসা করার সিন্ধান্ত করা হয়। কিন্তু তা মিমাংসা করতে নারাজ ছলেমান ভুঁইয়া গংরা।

তারা জানান, ঘটনার দিন সকালে তাজুল ইসলাম খান তার ক্রয়কৃত জমিতে মাটি ফেলে ভরাট করতে গেলে প্রতিপক্ষ ছলেমান ভূঁইয়া ও তার ছেলে ইউনুছ ভূঁইয়া, রুবেল ভূঁইয়া এবং গফুর মোল্লার ছেলে মনা মোল্লা, তাজুল ইসলামের ছেলে সাঈদুলসহ অজ্ঞাত আরো বেশ ক,জন মিলে দলবল নিয়ে এসে মোট অংকের চাঁদা দাবি করে তাদের জমি ভরাটে বাঁধা প্রদান করেন।

এসময় তাদের উভয় পক্ষের কথা কাটাকাটির এক পর্যায় ছলেমান গংদের লোকজন জমির মালিক তাজুল ইসলাম খানসহ তাদের স্বজনদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

Nk up

আহতদের অভিযোগ এসময় হামলাকারীরা দা, ছেনি, টেটা সহ দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাদের শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে এবং হামলার সময় শ্রমিকদের জন্য রাখা নগদ ২০ হাজার টাকা ও ৪ টি দামি মোবাইল লুট করে নিয়ে যায় বলেও আহতদের অভিযোগ।

পরে প্রতিপক্ষের এমন হামলায় তারা গুরুতর আহত হয়ে পড়লে অন্যান্য আত্মীয় স্বজনরা আহতদের সেখান থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায়। এ বিষয় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে চাঁদপুর মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলেছে বলেও তারা জানান।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষ ছলেমান ভূঁইয়া গংদের সাথে মুঠোফোনে বক্তব্য নিতে চাইলে কয়েকবার ট্রাই করেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

175 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন