sangorsha

পানের পিক ফেলা নিয়ে সংঘর্ষে ২০ জন আহত

নীলফামারী প্রতিনিধি :
নীলফামারীর সৈয়দপুরে পানের পিক ফেলাকে কেন্দ্র করে বিতর্কের সূত্র ধরে দুই ক্যাম্পবাসীর মধ্যে চরম সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার (২৭ এপ্রিল) ইফতারির পূর্ব মুহূর্তে শহরের নতুন বাবুপাড়া কলিম মোড় এলাকায় সংঘটিত এ ঘটনায় ৫ জন গুরুত্বরভাবে আহত হওয়াসহ মোট ২০জন জখম হয়েছেন। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

জানা যায়, বিগত ২ দিন পূর্বে শহরের শহীদ জহুরুল হক রোডস্থ মক্কা ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির দোকানে গেটে দেয়া তালায় পানের পিক ফেলা নিয়ে বিরোধ হয় স্থানীয় দুর্গামিল ক্যাম্প ও পার্শ্ববর্তী কুলি মহল্লার লোকজনের মধ্যে। এরই জের ধরে ২৭ এপ্রিল বাদ আসর আবারও উত্তেজনার সৃষ্টি হয় উভয় মহল্লাবাসীর মধ্যে। তর্ক-বিতর্ক চলতে চলতেই তা মূহুর্তে রূপ নেয় রণক্ষেত্রে।

add all nk last

তুমুল সংঘর্ষে দুই পক্ষের প্রায় ২ শতাধিক মানুষ ইট, পাথর নিক্ষেপসহ লাঠি, রড নিয়ে জড়িয়ে পড়ে মারামারিতে। এতে ঘটনাস্থলেই আহত হয় প্রায় ২০ জন। এর মধ্যে গুরুতরভাবে আহত কয়েকজনকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। একজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাৎক্ষণিক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে।

Nk

পৌরসভার ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এরশাদ হোসেন পাপ্পু বলেন, বিষয়টি আপোষ মীমাংসার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু উভয়পক্ষের অসহযোগিতার কারণে তা করা সম্ভব হয়নি। এরই মধ্যে আবারও তাদের সংঘর্ষের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। বিশেষ করে এই রমজান মাসে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসনাত খান বলেন, পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেলে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সৈয়দপুর পৌর সভার মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার অসুস্থ শরীর নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উভয় মহল্লায় যেয়ে তাদেরকে শান্ত করান এবং দ্রুত উভয় পক্ষকে নিয়ে মীমাংসার চেষ্টা করবেন বলে জানান।

218 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন