Chandpur Report faridgonj charto

ফরিদগঞ্জের ওসিকে নিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য, আটক দু’জন ছাত্রলীগ নেতা

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) করেসপন্ডেন্ট:
ফরিদগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তাকে নিয়ে একটি পোস্ট ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ওই পোস্টে থানার অফিসার ইনচার্জ এর নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ আনা হয়েছে। এতে, কয়েক ঘন্টার মধ্যেই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে গেছে।

কোনো যাচাই বাছাই ছাড়াই চলছে নানা মন্তব্য।

খবরের সত্যতা জানার জন্য বুধবার সংশ্লিষ্ট এলাকা ঘুরেও অভিযোগের কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। এক পর্যায়ে এলাকাবাসী অভিযোগটিকে স্রেফ গুজব বলে আখ্যা দিয়েছেন।

ফেসবুকের ওই পোস্টে অভিযোগ করা হয়েছে ত্রাণ দেয়ার নামে থানার অফিসার ইনচার্জ এক নারীর সঙ্গে অনৈতিক কাজ করেছেন।

Nk

পেইজবুকে উল্লেখ করা হয়েছে ওই নারীর বাড়ি উপজেলার ৮নং পাইকপাড়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে। পোস্টে নারীর নাম সালমা (১৯) ও তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম (৫৬) এবং বাবা পেশায় একজন চা দোকানী।

ফেসবুকে উল্লেখিত ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের উল্লেখিত নামের কোনো চা দোকানী, এমনকি সালমা (১৯). পিতা: রফিকুল ইসলাম নামের কারও সন্ধান পাওয়া যায়নি। কথা হয় সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার, চৌকিদার, এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে। তারা এমন নাম ঠিকানার কাউকে চেনেন না বা এমন অভিযোগ কখনও শুনেননি বলে জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব শুক্রবার বিকেলে প্রেস ব্রিফিং এ জানান, আমাকে নিয়ে ফেইসবুক আইডি “জেরিন আফরিন রুমা” হতে মিথ্যা, ভিত্তিহীন গুজব সৃষ্টি করা হয়।

add all nk last

বিষয়টি পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসা মাত্র ৫ সদস্যের একটি কমিটি করা হয় ৩০ এপ্রিল/২০২০ইংএ । তদন্তের এ পর্যায়ে ৩০ এপ্রিল বিকেলে পোয়া গ্রামের মোঃ মামুন হোসেন রুবেল (২০) কে ১৪নংফরিদগঞ্জ (দঃ) ইউনিয়নের গজারিয়া এলাকার কালির বাজারের মিতু কম্পিউটার এন্ড ট্রেনিং সেন্টার নামক দোকান থেকে আটক করা হয়।

মামুনকে জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী জানা যায়, শাহপরান আলম খান ওরফে রাব্বির কথায় ওসির বিরুদ্ধে উল্লেখিত আইডি থেকে আপত্তিকর পোষ্ট আপলোড করে।

পরে একই দিন রাব্বিকেও গজারিয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।রাব্বি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে। এ বিষয়ে তাদের বিরুদ্ধে ফরিদগঞ্জ থানায় এফআই আর নং-১/১২৬,০১.০৫.২০২০ইং জিআর নং-১২৬,ধারা -২৯/৩১/৩৫ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮এ মামলা করা হয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলার সবর্ত্র ব্যাপক আলোচনা – সমালোচনা ঝড় তুলেছে।

আটকৃতরা হচ্ছে, কালির বাজার কলেজ ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মামুন হোসেন রুবেল (২০) ও ১৪ নং ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাপরান আলম খান রাব্বী (২৫)।

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহাবুব আলম সোহাগ জানায়, মামুন হোসেন রুবেল ছাত্রলীগের কেউ নয়। আর শাহপরান রাব্বি দোষী হলে আমিও তার বিচার চাই।

 40 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন