মিসকলকে কেন্দ্র করে স্ত্রীকে গাছের সাথে বেঁধে গরম লোহার ছ্যাঁকা

নিউজ ডেস্ক :

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে স্ত্রীর মুঠোফোনে মিসকলের জের ধরে স্ত্রীকে গাছে বেঁধে রেখে শরীরের বিভিন্ন অংশে গরম লোহার ছ্যাঁকা দেওয়াসহ শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

আক্কেলপুর উপজেলার শ্রীকৃষ্টপুর গ্রামে বুধবার (২৭ মে) রাতে এই অমানবিক ঘটনার পর বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে ওই গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে ও গৃহবধূ খাদিজা খাতুনের স্বামী শাকিল হোসেন এবং শাকিলের বড় ভাই আসলাম হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এলাকাবাসী ও গৃহবধূ খাদিজার অভিযোগের সূত্র ধরে আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ওবায়েদ জানান, প্রায় আড়াই বছর আগে রাজমিস্ত্রি শাকিল হোসেনের সাথে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহারের পার্শ্ববর্তী পোতা গ্রামের আইয়ূব আলীর মেয়ে খাদিজার বিয়ে হয়।

বিয়ের সময় খাদিজার বাবা দাবীকৃত যৌতুকের সব টাকা পরিশোধ করলেও বিয়ের কিছুদিন পর থেকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র শাকিল প্রায় স্ত্রীকে মারধর করতেন। এরই এক পর্যায়ে বুধবার রাতে খাদিজা খাতুনের মোবাইল ফোনে মিস কল আসলে এর জের ধরে তাকে লিচু গাছের সাথে বেঁধে বেধড়ক পেটাতে থাকে শাকিল।

পরে লোহা গরম করে খাদিজার শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রতঙ্গে ছ্যাঁকা দিলে ওই গৃহবধূর চিৎকারে প্রতিবেশীরা তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আক্কেলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন।

এ ঘটনায় খাদিজার বাবা বাদী হয়ে শাকিল, তার বাবা আব্দুস ছালাম, মা সেলিনা বেগম ও বড় ভাই আসলাম হোসেনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ শাকিল ও তার বড় ভাইকে গ্রেফতার করলেও মা ও বাবাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান ওসি।

245 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়