চাঁদপুরে জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্টে ৪ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার :
জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্টে চাঁদপুরে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে চাঁদপুর সদরে ১জন মতলব দক্ষিণে ২জন এবং কচুয়ায় ১জন। মৃতদের মধ্যে ৩জন পুরুষ ও ১জন নারী।

জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসার আব্দুল বারেক বকাউল (৫৫) করোনা উপসর্গে মারা গেছেন। বুধবার রাত ৩টার সময় ঢাকা নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। চাঁদপুর শহরের মমিন পাড়ায় তিনি বসবাস করতেন।

বারেক বকাউল কয়েকদিন ধরে করোনাভাইরাসের নানা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ ছিলেন। মঙ্গলবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাত ১১টায় চাঁদপুর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে নেয়া হলে আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা রেফার করেন। ঢাকা রওনা হলে রাত ৩ টায় পথিমধ্য তার মৃত্যু হয়।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার উপাদী উত্তর ইউনিয়নের দক্ষিণ ডিঙ্গাভাঙ্গা গ্রামের মোঃ মিজান বকাউল (৫৫) করোনা উপসর্গে বুধবার সকাল ৭টায় মারা গেছেন।

Night King Sex Update

অপরদিকে একই বাড়ির বাচ্চু বকাউলের স্ত্রী মনি বেগমের (৫০) বুধবার রাত আড়াইটায় উপসর্গে মৃত্যু হয়।
বুধবার দুপুরে উভয়কে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভলেন্টিয়ার টিমের সহায়তায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
বেশ কয়েকদিন ধরে মিজান বকাউল করোনা উপসর্গ নিয়ে ভুগছিলেন।

এদিকে ওই বাড়ির বাচ্চু বকাউলের স্ত্রী মনি বেগমও করোনা উপসর্গে ভুগছিলেন। স্থানীয় চিকিৎসকের কাছ থেকে ওষুধ খাইয়েছিলেন। মঙ্গলবার রাতে তার শারীরিক অবস্থার বেশ অবনতি ঘটলে রাত আড়াইটায় সে মারা যায়। নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হওয়ায় স্বাস্থ্য বিভাগ তার নমুনা সংগ্রহ করেনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে দু’জনের দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। তাদের উভয়ের পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ ও ওই বাড়িটি লকডাইন করা হয়েছে।

Add all Night king

এদিকে কচুয়া উপজেলায় করোনা উপসর্গে ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল হাকিম(৪০) নামে এক ব্যক্তি বুধবার সকাল সাড়ে নয়টায় মারা গেছেন। তিনি বরিশাল জেলার মেহেদীগঞ্জ উপজেলার অধিবাসী । গত তিন বছর যাবত তিনি কচুয়ায় ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডাক্তার সালাউদ্দিন জানান, মৃত আব্দুল হাকিম তিন/চারদিন ধরে জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন জনৈক ইদ্রিস বকাউলের বাড়িতে স্ত্রীসহ বসবাস করতেন। তার স্ত্রী এখন অন্তঃসত্ত্বা। ওই বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

 22 সর্বমোট পড়েছেন,  1 আজ পড়েছেন

শেয়ার করুন