কখনো সচিব, কখনো পুলিশ কর্মকর্তা… অবশেষে আটক

সচিব ও পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে শাহাদৎ হোসেন ও তার স্ত্রী নাজমা বেগমকে (৪০) আটক করেছে যশোর ডিবি পুলিশ। শুক্রবার ভোরে তাদেরকে শেরপুর জেলার শ্রীবরদী থানার বালিয়াচন্ডি গ্রাম থেকে আটক করা হয়। আটক শাহাদৎ ওই গ্রামের মৃত লতিফ মাস্টারের ছেলে। এসময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহার করা চারটি মোবাইল ফোন ৮টি সীমকার্ড উদ্ধার করা হয়।

আটক শাহাদাৎ ওরফে শাহা কথনো কনেস্টবল জামান, কখনো সচিব মঞ্জুরুল ইসলাম, কখনো সচিব গোলাম কিবরিয়া নামে সাধরণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছিলেন।

আজ শনিবার দুপুরে যশোর পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংএ এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেন। এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম রব্বানি ও ডিবি পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ব্রিফিংএ পুলিশ সুপার জানান, ২০১৩ সাল থেকে শাহদৎ হোসেন বিভিন্ন জেলায় সচিব, পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন সরকারী কর্মকর্তার কাছ থেকে প্রতারণা করে এবং সাধারণ মানুষকে চাকরি দেয়ার কথা বলে অর্থ হাতিয়ে নেয়। এমন তথ্য যশোর জেলা পুলিশের নজরে আসলে কোতয়ালি মডেল থানায় একটি জিডি করা হয়। এরপর ডিবি পুলিশের এস আই মফিজুল ইসলাম মিথ্যা পরিচয়দানকারী শাহাদৎ হোসেনকে শনাক্ত করেন এবং ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত ওসি সোমেন দাসের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে তাদের শেরপুর থেকে আটক করা হয়।

31 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়