chandpur report 352

মৈশাদীতে দুগ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৪

গোলাম মোস্তফা :

সম্পত্তিগত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চাঁদপুর সদর উপজেলার ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের তালতলা বাজার সংলগ্ন এলাকায় দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। বাজারের উত্তর পাশে বেকারী সংলগ্ন মানিক পাটোয়ারীর বাড়ির মৃত হাবিবুল্লার সন্তান বক্তিয়ার খিলজী পাটোয়ারী পরিবারের সাথে গত ২৩ জুলাই বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় হারুন চৌকিদার, কামাল চৌকিদার ও স্বপন চৌকিদারদের সাথে এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এতে করে বক্তিয়ার খিলজী, তার স্ত্রী ও তিন ছেলে সহ অপর পক্ষের কামাল গুরুতর আহত হন বলে এলাকাবাসী জানান।

এ বিষয়ে বক্তিয়ার খিলজীর বড় ছেলে তাজবীর আহমেদ তুসী জানান, সন্ধ্যায় আমার ভাই তাওহীদ বিন কমর (১৪) কে হারুন চৌকিদারের ছেলে নাহিদ, নাসির, ভাইয়ের ছেলে শাওন সহ আরো অনেকে মারধর করে। পরবর্তীতে বিষয়টি আমি তাদের কাছে জিজ্ঞেস করলে আমার বাড়িতে হারুন চৌকিদার, কামাল চৌকিদার, স্বপন চৌকিদার গং আমার গায়ে হাত তোলে এবং আমাকে এলোপাতাড়ি দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকে। আমার বাবা বক্তিয়ার খিলজী, আমার মা তাসলিমা খিলজীসহ আমার ছোট ভাইরা তাদের কবল থেকে রক্ষা করতে আসলে তারা আমার বাবা, মা ও ভাইদেরকেও অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে।

এ বিষয়ে বক্তিয়ার খিলজী জানান, তারা আমার জায়গা জোরপূর্বক দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করেও থেমে থাকেনি। আজ পরিকল্পিতভাবে আমার পরিবারের উপর আক্রমণ করে। আমার পরিবারের সবাই এখন চিকিৎসাধীন। আমার বড় ছেলে তাজবীর আহমেদ তুমসীর মাথায় পাঁচটি সেলাই এবং ডান হাতে দুটি সেলাই দেয়া হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে কামাল চৌকিদার (৩৫) চাঁদপুর সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে চিকিৎসা নেয়া অবস্থায় জানান, বক্তিয়ার খিলজী আমাদের সাথে পরিকল্পিতভাবে ছেলেকে লেলিয়ে দিয়ে সংঘর্ষের সৃষ্টি করে। তারা পরিবারের সবাই মিলে অস্ত্র নিয়ে আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। আমাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে মাথা ফাটিয়ে দেয়। আমার মাথায় চারটি সেলাই লাগে। এছাড়াও তারা আমার ভাই হারুন চৌকিদার স্বপন ও চৌকিদারকে মারধর করে আহত করে।

87 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন