chandpur report 364

হাজীগঞ্জের রামপুরে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে কিশোর আটক

স্টাফ রিপোর্টার:
হাজীগঞ্জে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। ২৭ জুলাই সোমবার বিকালে শিশুটির মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ বাড়ী থেকে মো.শাহেদ (১৪) নামে কিশোরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার ৪নং কালচোঁ দক্ষিণ ইউনিয়নের মোল্লা বাড়ীর কামাল মোল্লার ৬ বছরের শিশু কন্যার সাথে একই বাড়ীর দুলাল মোল্লার ছেলে শাহেদ (১৪) গত শুক্রবার ও শনিবার ছাগল খোঁজার নাম করে বের হয়। শুক্রবার বিকালে বাড়ীর পাশে কিশোর শাহেদ শিশুটিকে একা পেয়ে ছাগল খোজার নাম করে নৌকায় উঠে। আসপাশের বিলের চারদিকে মেয়েটি ঘুরে ছাগল খোজের নামে ঘুরে বেড়ায়। পরের দিন শনিবার সকালে শিশুটিকে নিয়ে ছাগল খোজার নামে কিশোর নৌকায় উঠে। বিলের পাশে পাট ক্ষেতের ভিতরে নৌকা নিয়ে ভালবাসা খেলা খেলি বুঝিয়ে শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় শিশুটির ডাক চিৎকার দিলে কিশোর ভয় পেয়ে যায়। এদিকে শিশুটির মা অনেক আগ থেকে চারদিকে খোজ নেয় এবং তার নাম ধরে ডাক দিলে শিশুটি মায়ের ডাকে সাড়া দেয়। কিছুক্ষণ পর তারা দুইজন নৌকা দিয়ে পাড়ে নামলে শিশুটির মা মেয়ের মাথার চুল ও শরীরের অবস্থা দেখে বুঝতে পারে। ঘরে গিয়ে শিশুটির মুখে মা সব জানতে পেরে কিশোরের পরিবার ও বাড়ীর লোকজনকে জানায়। বিষয়টিকে পাত্তা না দিয়ে বরং শিশুটির মায়ের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে কিশোরের পরিবার। বিচার পাবে না জেনে শিশুটিকে নিয়ে মা রবিবার একটি পাইভেট হাসপাতালে ডাক্তার দেখিয়ে পরের দিন সোমবার হাজীগঞ্জ থানায় এসে কিশোরের নামে মামলা দায়ের করে।

সোমবার শিশুটির মায়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে হাজীগঞ্জ থানার এস আই সেলিম ঘটনাস্থলে গিয়ে কিশোরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং পরে বিকালে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় শিশুর মা কিশোর শাহেদের বিচার দাবি কওে বলেন, এখন থেকে যদি দুরন্ত এ ছেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয় তাহলে আমার মেয়ের মত আরো অনেক ছোট শিশুর জীবন ক্ষতি করতে বসে থাকবে।

এস আই সেলিম মিয়া বলেন, আমরা শিশুটির মায়ের অভিযোগের আলোকে কিশোরকে আটক করেছি। বাকিটা আরো জিজ্ঞাসাবাদ ও ডাক্তারি পরীক্ষাসহ অনেক কাজ বাকী আছে।

424 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন