চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরাম চৌধুরীর দাফন সম্পন্ন

চাঁদপুর প্রতিনিধি :
চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর দর্পণের সম্পাদক ও প্রকাশক ইকরাম চৌধুরী ঢাকার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শনিবার (৮ আগস্ট) ভোর সাড়ে ৪ টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

শনিবার বিকেল চারটায় চাঁদপুর প্রেসক্লাব মাঠে ইকরাম চৌধুরীর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি কররেন মাওলানা আব্দুর রহমান।

জানাজার পূর্বে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এ এইচ আহসানুল্লাহর পরিচালনায় মরহুমের কর্মময় জীবন নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এমপি, জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, জাগো নিউজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মহিউদ্দিন খান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাজী শাহাদাত, শহীদ পাটোয়ারী, গোলাম কিবরিয়া জীবন, অধ্যাপক জালাল চৌধূরী, ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী, বিএম হান্নান, জেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটোয়ারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা জাকির, সোহেল রুশদী, রহিম বাদশা, লক্ষণ চন্দ্র সূত্রধর, জি এম শাহিন, মাহবুবুর রহমান সুমন, অ্যাড. শাহজাহান মিয়া, টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আল ইমরান শোভন, সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ ফেরদৌস, চাঁদপুর ফটো জার্নালিস্ট এসোশিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ, সাধারণ সম্পাদক তালহা জুবায়ের, ফরিদগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি কামরুজ্জামান, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রাকিবুল হাসান, মতলব উত্তর প্রেসক্লাবের সামছুজ্জামান ডলার, মতলব দক্ষিণ উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি শ্যামল চন্দ্র দাস, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষে হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ইকরাম চৌধূরী ১৯৮১সালে হাস্ন আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করার পর থেকেই সাংবাদিকতা শুরু করেন। ১৯৮৩ সালে এইচএসসি পাশ করার পর হেলাল উদ্দিনের হাত ধরে পরিপূর্ণ সাংবাদিকতায় জরিয়ে পরেস। ইকরাম চৌধূরী ২০০২ সালে নির্বাচিত সাধারণ সমপাদক হয়ে চাঁদপুর প্রেসক্লাব ভবনটিকে বহুতল ভবন করার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন চাঁদপুর প্রেস ক্লাবের ঐক্যের প্রতীক। ইকরাম চৌধূরী মেরিন ইন্জিনিয়ার হিসেবে চাকুরি করতেন।সরকারি চাকুরি ছেড়ে দিয়ে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত সায়বাদিকতা পেশাকেই বেছে নিয়ে কাজ করে গেছেন সুনামের সাথে।

পরে বাদ আসর চাঁদপুর সরকারি কলেজ মাঠে তার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে চাঁদপুর পৌর কবরস্হানে পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ কিডনী ও ডায়াবেটিস রোগসহ জটিল রোগে ভুগছিলেন। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ১ মেয়ে, ৫ভাই-৩বোনসহ বহু আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন। তাঁর গ্রামের বাড়ী ফরিদগঞ্জ উপজেলার ২নং বালিথুবা ইউনিয়নের শোশাইর চরে। পিতা মরহুম দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী ছিলেন অবসর প্রাপ্ত মহকুমা শিক্ষা অফিসার। তারা দীর্ঘকাল যাবৎ চাঁদপুর শহরের নাজির পাড়া এলাকায় বসবাস করছেন।

মরহুমের মৃত্যুতে চাঁদপুর প্রেসক্লাব তিন দিনের শোক ঘোষণা করেছে। আগামী মঙ্গলবার বিকেলে প্রেসক্লাবে কোরআন খতম ও মিলাদ অনুষ্ঠিত হবে। গভীর শোক প্রকাশ করেছেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবসহ সর্বস্তরের সাংবাদিকবৃন্দ। এক শোকবার্তায় তারা মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

79 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়