রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ৬ আসামীর ফাঁসির আদেশ, ৪জন খালাস

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। এতে মিন্নিসহ ৬ আসামীর মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করা হয়েছে। এবং বাকি ৪ আসামীকে খালাস প্রদান করা হয়েছে।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আসাদুজ্জামানের আদালতে এ রায় দেওয়া হয়।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মো. রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজী (২৩), আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), মো. হাসান (১৯) ও আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯)।

এছাড়া এ মামলায় চার আসামিকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়েছে। খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- মো. মুসা (২২), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)।

রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপ্রাপ্ত রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি, আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়, মো. হাসান, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, মো. সাগর এবং কামরুল ইসলাম সাইমুন রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

১০ আসামির মধ্যে মুসা পলাতক এবং মিন্নি জামিনে রয়েছেন। মুসা ব্যতীত বাকিরা রিফাত হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছিলেন।

জানা গেছে, বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় সকালে ‌ক‌ঠোর নিরাপত্তার মধ্যদি‌য়ে বেলা ১১টা ৪০ মি‌নি‌টে কারাগার ‌থে‌কে আসামি‌দের আদাল‌তে আনা হয়।

মামলার বাদী রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মিন্নিসহ সব আসামির শাস্তি চাই আমরা। দেশের বিচার ব্যবস্থার ওপর আমাদের আস্থা আছে। আদালত রিফাতের খুনের সঙ্গে জড়িতদের এমন শাস্তি দিক যাতে আমরা স্বস্তি পাই। ‘

এদিকে চোখে মুখে চিন্তার ছাপ থাকলেও পরিবারের লোকজনকে আশার বাণী শুনিয়েছেন মিন্নি। বাবার সঙ্গে আদালতের উদ্দেশে বের হওয়ার সময় বাবা-মাকে বলেছেন, তিনি নির্দোষ, খালাস পাবেন। মা-বাবাকে চিন্তা করতে বারণ করেছেন রিফাতের স্ত্রী মিন্নি।

বুধবার বরগুনা জেলা জজ আদালত চত্বরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হক কিশোর। তিনি বলেন, ‘সকাল থেকে মিন্নি একটা কথাই আমাকে বারবার বলছে, বাবা আমি নির্দোষ, আমি খালাস পাব। তুমি চিন্তা করো না। আমিও বিশ্বাস করি, মিন্নি অপরাধ করেনি, সে খালাস পাবে।’

 

১০ আসামির ৮ জনকে আদালতে নিয়ে যাওয়া হবে। এখনও পলাতক আসামি মুসা বন্ড। বাকি আসামি রিফাত ফরাজী, রাব্বি আকন, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, টিকটক হৃদয়, হাসান বন্ড, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, সাগর ও কামরুল ইসলাম সায়মুনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ রয়েছে।

১৫ মাস আগের নৃশংসভাবে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার বহুল আলোচিত এ মামলায় পুলিশ যে ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছিল, তাদের মধ্যে ১০ জনের বিচার চলে জজ আদালতে। বাকি ১৪ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের বিচার চলছে বরগুনার শিশু আদালতে আলাদাভাবে।

আমরা সংবাদের বস্তুনিষ্ঠতায় বিশ্বাসী, প্রিয় সময় গুজব প্রচার করে না

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রি. ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরি, বুধবার

 

 

166 জন পড়েছেন

Recommended For You

অনুমতি ব্যতীত এই সাইটের কোনো সংবাদ, ছবি অন্য কোনো মাধ্যমে প্রকাশ আইনত দণ্ডনীয়