chandpur report 570

চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের অভিযানে ১শ ৩১ মামলায় ১৬হাজার ২শ’ টাকা অর্থদন্ড

চাঁদপুর প্রতিনিধি :

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় বাবুরহাট বাজার, ওয়ারলেস মোড়, ইলিশ চত্বর ও হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের সামনে মোট ৪টি জায়গায় ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্টের টিম আমরা মাঠে নামিয়ে মাস্কের উপরে আজকে আমরা সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছি। জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান স্যারের নির্দেশ দিয়েছেন চাঁদপুর শহরে যেন মাস্ক ব্যাতিত কোন মানুষ না থাকে। এছাড়াও ধর্ম মন্ত্রনালয়ের নির্দেশ বাস্তবায়নের জন্যে আজ থেকে চাঁদপুরে আমরা কঠোর অবস্থান গ্রহন করেছি।

মঙ্গলবার ১০ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত শতভাগ মাস্ক নিশ্চিত করতে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযানের সময় তিনি গনমাধ্যমকে এসব কথা জানায়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আরো জানান, আমরা চাই সবাই যেন মাস্ক পরিধান করে। যেহেতু এখন পর্যন্ত করোনার কোন ভ্যাকসিন আবিস্কার হয়নি সেহেতু প্রাথমিকভাবে মাস্ক পরা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাই ভ্যাকসিন হিসেবে কাজ করছে। এই অভিযানের ফলে মানুষের মধ্যে আরো সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে এবং আমরা করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় সক্ষম হবো।

চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযানে ৪টি পয়েন্টে ১শ ৩১ মামলায় ১শ ৪৩ জনকে ১৬ হাজার ২শত টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়।

মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ইলিশ চত্বরে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মেহেদী হাসান মানিক ৫৬ মামলায় ৫ হাজার ৯ শত টাকা, হাসান আলী মাঠের সামনে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুন্নাহার ৩১ মামলায় ৩ হাজার ৪ শত টাকা, বাবুরহাট বাজারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান মাহমুদ ডালিম ১৭ মামলায় ৩ হাজার টাকা ও ওযারলেস মোড়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ অলিদুজ্জামান ২৭ মামলায় ৩ হাজার ৯ শত টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন।

সাঁড়াশি এ অভিযানে পুলিশ আনসার ভিডিপি ও জেলা প্রশাসন কর্তৃক গঠিত স্বেচ্ছাসেবক টিমের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

68 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন