chandpur report 1442

কুমিল্লার চান্দিনায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা

চান্দিনা প্রতিনিধি :

কুমিল্লার চান্দিনায় প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া আয়োজিত মাহফিলে অংশগ্রহণ এবং উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

১৫ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ওই মাহফিলের আয়োজক ও অতিথিদের বিরুদ্ধে ১৭ ডিসেম্বর পুলিশ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। এ ছাড়া ওই মামলায় হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকেও আসামি করা হয়।

মামলার বিষয়ে কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, ১৫ ডিসেম্বর কুমিল্লার চান্দিনার জোয়াগ পশ্চিমপাড়া এলাকায় আয়োজিত ওই মাহফিলে প্রশাসনের অনুমতি নেওয়া হয়নি। সেখানে মাওলানা মামুনুল হক এসে বিভিন্ন উসকানিমূলক বক্তব্য দেন। এ ঘটনায় ১৭ ডিসেম্বর পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে।

এদিকে ওই মাহফিলের বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট একাংশের চেয়ারম্যান মিছবাহুর রহমান চৌধুরী। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ভাস্কর্য ইস্যুসহ সাম্প্রতিক ঘটনাবলি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

মিছবাহুর রহমান চৌধুরী জানান, ১৫ ডিসেম্বর তাকে কুমিল্লার চান্দিনা থানার জোয়াগ পশ্চিমপাড়া এলাকায় দুই দিনব্যাপী ইসলামী মহাসম্মেলনের দ্বিতীয় দিন প্রধান অতিথি হিসেবে দাওয়াত দেওয়া হয়। সে অনুযায়ী তিনি বক্তব্য শেষ করে ওই দিনই রাত ১১টার দিকে ঢাকায় রওনা হন। পরে তিনি জানতে পারেন সেখানে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকও যোগ দেন। এমনকি রাত ১২টার পর মাওলানা মামুনুল ওই মহাসম্মেলনে বক্তব্য দেন বলেও জানতে পারেন তিনি।

আয়োজকরা মাওলানা মামুনুল হক আসার বিষয়টি পরিকল্পিতভাবে সম্পূর্ণ গোপন রাখেন বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে মিছবাহুর রহমান চৌধুরী আরও দাবি করেন, ওই মাহফিলের পরের দিন মামুনুল হকের ব্যক্তিগত ও জামায়াত-শিবিরের ফেসবুক ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে “মামুনুল হকের মাহফিলে মিছবাহুর রহমান চৌধুরী” এমন শিরোনামে নানা প্রপাগান্ডা চালাতে থাকেন।

দেশের মধ্যে একটি অরাজকতা তৈরি করতেই বিএনপি-জামায়াতের মদদে মামুনুল হক এসব করছেন বলে লিখিত বক্তব্যে দাবি করেন ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, একটি গোষ্ঠী পরিকল্পিতভাবে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করলেও জিয়াউর রহমান ও বেগম খালেদা জিয়ার ভাস্কর্য ভাঙার বিষয়ে কোনো কথা বলছে না। বিএনপি-জামায়াতের মদদে শান্তি বিনষ্ট করে ফেতনা ছড়াতেই মামুনুল হক গোষ্ঠী এসব করছে।

62 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন