chandpur report 1443

পশ্চিম লাড়ুয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসায় অ্যাসাইনমেন্টে অর্থ নেওয়ার অভিযোগ

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম লাড়ুয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসায় অ্যাসাইনমেন্টে অর্থ আদায়ের গুরুতর অভিযোগ উঠেছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট উপজেলা শিক্ষা অফিসের অ্যাসাইনমেন্টে টাকা না নেওয়ার সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকা স্বত্ত্বেও এ প্রতিষ্ঠানে ১ম শ্রেণি থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত প্রতিটি শিক্ষার্থী পিছু অর্থ আদায় করে ছেড়েছে। অভিভাবকরা এ বিষয়ে মুখ খুলতে পারছে না। কেননা মাদ্রাসাটির সুপার চাঁদপুর জেলা ওলামালীগের সভাপতি।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) ২০২০ সরেজমিন গিয়ে এ বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। প্রাথমিক স্তরে ১ম ও২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী পিছু ৫০ টাকা, ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর ৭৫ টাকা, ৫ম শ্রেণীর জন্য ১শ টাকা আদায় করেছে। মাধ্যমিক স্তরে ৬ষ্ঠ শ্রেণী ও ৭ম শ্রেণীতে ১৫০ টাকা ও ৯ম শ্রেণীতে ২০০ টাকা শিক্ষার্থী পিছু আদায় করেছেন। সংশ্লিষ্ট মাদ্রারাসার শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষক বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ৮ম শ্রেণির শিক্ষাথী রাহিমা ও ৬ষ্ঠ শ্রেণির আকলিমার পিতা রহিম বলেন, আমাদের কাছ থেকে ৭০/৮০ টাকা করে নেওয়া হয়েছে।

মাদ্রাসাটির সুপারের অফিস কক্ষ , শিক্ষক মিলনায়তনসহ কোথাও বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি টানানো হয়নি।

এ বিষয়ে সুপার মাও. আব্দুল কাদেরের কাছে জানতে চাইলে তিনি মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে অপর কক্ষে আছে বলে কেটে পড়েন। অপর সবকক্ষ পরিদর্শন করে কোথাও ছবি টানানো দেথতে পাওয়া যায়নি। এ পরিস্থিতিতে তাৎক্ষণিক বঙ্গবন্ধুর ছেঁড়া একটি ছবি ও প্রধানমন্ত্রীর পুরোনো একটি ছটি সাঁটানো হয়েছে। যা মর্যাদার পরিবর্তে অমর্যাদা করার সামিল।

মাদ্রাসাটির মাঠে চলছে সবজি চাষ। সবজি চাষ কে করেছেন তাও জানা নেই সংশ্লিষ্ট মাদ্রাসার সুপারের। দীর্ঘ বছর যাবৎ সুপার মাও. আব্দুল কাদের মাসে ২/৩ দিনের বেশী মাদ্রাসায় আসতেন না। কেননা তিনি জেলা ওলামা লীগ নেতা। তাই সব সময় ব্যস্ত থাকেন।

এ বিষয়ে সুপার মাও. আব্দুল কাদের জানান, অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে সামান্য ৫০ টাকা করে নেওয়া হয়েছে। ছবির বিষয়ে তিনি সুনির্দিষ্ট কোনও ব্যাখ্যা দিতে পারেনি। তিনি  এ বিষয়ে মাদ্রাসার সভাপতি ইন্তেকাল করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. শাহ আলী রেজা আশরাফী জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর নতুন ছবি লাগানোর জন্য প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান প্রধানকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। যদি এ বিষয়ে অভিযোগ পাই তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

শেয়ার করুন