chandpur report 1555

ফরিদগঞ্জে ভিক্ষুকের মেয়ে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ : আটক ৪

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি:
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ভিক্ষুকের মেয়েকে শ্রবণপ্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে কৌশলে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে দলবেঁধে গণধর্ষণ করেছে সিএনজি স্কুটার ও ইজিবাইক চালক ৬ যুবক।

এ ঘটনায় পুলিশ ৪ জনকে আটক করে মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারী) চাঁদপুর আদালতে প্রেরণ করেছে। উপজেলার সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে নারকীয় লোমহর্ষক এই ঘটনাটি ঘটে।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে জানা গেছে, গত সোমবার (১১ জানুয়ারি) বিকালে শ্রবণ প্রতিবন্ধী কিশোরীটি বুকের ব্যথার ঔষধ কেনার জন্য বাড়ি থেকে বের হলে একই বাড়ির জামাল হোসেনের ছেলে ইজিবাইক চালক টিটু কৌশলে তার ইজিবাইকে তুলে নিয়ে কিশোরীকে পাশ^বর্তী একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর তাকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে রাত হয়ে গেলে টিটু ও তার সহযোগী অন্যরা পালাক্রমে দ্বিতীয়বার ইউনিয়নে পরিষদ ভবন এলাকায় এবং সর্বশেষ পাশ^বর্তী একটি বাগানে নিয়ে আবারো ধর্ষণ করে এবং ওই বাগানের পাশে ফেলে রেখে যায়।

পরে আশপাশের লোকজন টের পেয়ে কিশোরীটিকে উদ্ধার করে তার বাড়িতে পৌছে দেয়। বাড়ি ফিরে কিশোরীটি পরিবারের লোকজনকে এ ঘটনা জানায়। এরপর স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করে এলাকার কিছু প্রভাবশালীরা।

একপর্যায়ে সোমবার রাতে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে অভিযানে বের হয়। রাতভর অভিযান চালিয়ে তিন জনকে আটক করতে সক্ষম হয়। তারা সবাই ইজিবাইক ও সিএনজি স্কুটার চালক।

এরা হলো জামাল হোসেনের ছেলে টিটু (২০), আইটপাড়া গ্রামের আ. মান্নানের ছেলে শিপন(২৫), একই গ্রামের মৃত আবু বকর সিদ্দিক প্রকাশ কালুর ছেলে মিজানুর রহমান রিপন(৪৫)। পরে মঙ্গলবার বিকালে কামতা গ্রামের শরাফত আলীর ছেলেচৌকিদার আ: মালেক(৪৫)কে আটক করতে সমর্থ হয় পুলিশ।

পরে মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনার শিকার কিশোরীটির মা জোছনা বেগম বাদী হয়ে ৬ জনকে অভিযুক্ত করে ফরিদগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে, ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, সোমবার(১৮ জানুয়ারি) রাতে ঘটনাটি শোনার পর রাতেই সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত তিন জনকে এবং মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি)আটক করতে সক্ষম হই। বাকিদেরকে আটকের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। কিশোরীটিকে উদ্ধার করে পরবর্তী আইনী পদক্ষেপের জন্য ও আটককৃতদের চাঁদপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন