chandpur report 1650

আমি জেলার প্রত্যেক থানাকে সেবার কেন্দ্রবিন্দু করার চেষ্টা করেছি : : পুলিশ সুপার

চাঁদপুর পুলিশ লাইনসে মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে চাঁদপুরের পুলিশ সুপার  মো. মাহবুবুর রহমান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট :

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার ও সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মাহবুবুর রহমানের সাথে মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁদপুর পুলিশ লাইনস ড্রিলসেটে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এছাড়া বিদায়ী পুলিশ সুপারকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান প্রেসক্লাব ও ফটোজার্নালিস্ট নেতৃবৃন্দ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মো. আসাদুজ্জামানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ সার্কেল) সোহেল মাহমুদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (কচুয়া সার্কেল) আবুল কালাম চৌধুরী।

এ সময় সাংবাদিকদের উদ্যোশ্যে সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত অতিরিক্ত ডিআইজি ও বিদায়ী পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, আমি আল্লাহর কাছে শুধু একটি জিনিস প্রার্থনা করি, আমি যেনো ভালো মানুষ হতে পারি। পৃথীবির সবচেয়ে বড় একটি বিষয় হচ্ছে, কারো মনে কষ্ট কিংবা ক্ষতি না করে কর্মস্থল থেকে বিদায় নেওয়া। আজকের অনুষ্ঠানটি একটি আন্তরিকতার বহি:প্রকাশ। আমি সব সময়ই সাংবাদিক বান্ধব পুলিশিং কার্যক্রম করতে চাই। চাঁদপুরে ১৭ মাস কাজ করার ক্ষেত্রে সাংবাদিক আর পুলিশের মধ্যে কোন রকম দূরত্ব ছিলো না। বিশেষ করে চাঁদপুরে কাজ করার সময়গুলো আমার কাছে ছিলো স্বর্ণালী দিন। আমরা করোনাকালীন সময়ে একত্রিত হয়ে কাজ করেছি। আপনাদের কাজের মাধ্যমেই পুলিশ-সাংবাদিকদের সেতু বন্ধন তৈরি হয়েছে। আমাদেরকে কোন ভাবেই বিচ্ছেদ করা যাবে না। সাংবাদিক আর পুলিশের সম্পর্ক হবে পারিবারিক। আপনারা আমাকে তাই মনে করবেন।

পুলিশ সুপার বলেন, আমি জেলার প্রত্যেক থানাকে সেবার কেন্দ্রবিন্দু করার চেষ্টা করেছি। এর মাধ্যমে থানাগুলোতে আমুল পরিবর্তন ঘটেছে। প্রত্যেকটি নিয়োগের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা রেখে করান হয়েছে। আমার ১৭ মাস কর্মকালীন সময়ে ৮০২ টি মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করা হয়েছে। এছাড়া ১২শ’ ৭৩ আসামী গ্রেফতার করা হয়েছে। মোট ৩ কোটি ৪০ লক্ষ ১৮ হাজার ৬শ’ ৩৫ টাকার মাদকের মাল উদ্ধারসহ চোরাই স্বার্ণালংকার এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলা আমরা উদঘাটন করেছি। আর এ কাজে কিন্তু সাংবাদিকরা আমাদেরকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। বর্তমানে বাংলাদেশ পুলিশ আইট ক্ষেত্রে অনেকদূর এগিয়ে গিয়েছে। আমরা চাঁদপুরে জঙ্গিবাদসহ অনেক অদৃশ্য শক্তির বিরুদ্ধে কাজ করেছি। আমি চাঁদপুরের সাংবাদিকদের সাধুবাদ জানাই, আপনারা আমাদের চ‚ড়ান্ত পর্যায় থেকে সহযোগিতা করেছেন। আপনারা আমার ভাই হয়ে থাকবেন।

উন্মুক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক জালাল চৌধুরী, শহীদ পাটওয়ারী, শরীফ চৌধুরী, গিয়াসউদ্দিন মিলন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল রুশদী, লক্ষণ চন্দ্র সূত্রধর, মির্জা জাকির, এএইচএম আহসান উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শান্ত, আলম পলাশ, চাঁদপুর ফটোজার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি এম এ লতিফ, সাধারণ সম্পাদক, কে এম মাসুদ চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সমাজকল্যাণ সম্পাদক শওকত আলী, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক এ কে আজাদ, ক্রীড়া সম্পাদক ফারুক আহম্মদ, সদস্য অধ্যাপক মোশারফ হোসেন লিটন, এম আর ইসলাম বাবু, শরীফুল ইসলাম, চাঁদপুর কন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার আব্দুর রহমান গাজী প্রমুখ।

শেয়ার করুন