chandpur report 1704

ফরিদগঞ্জের রুমুরখাল খনন প্রকল্পের কাজ দ্রুতগতিতে চলছে

নিজস্ব প্রতিনিধি : : শেখ হাসিনার উন্নয়ন নদী-খাল খনন, শ্লোগানে সেচ প্রকল্পের উন্নয়ন জমিতে জলাবদ্ধতা দূরীকরণের অংশ হিসেবে সরকারি ভাবে খাল খননের প্রকল্প সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় । এই খাল খনন প্রকল্পের মাধ্যমে যে খাল গুলো সুরু হয়ে পানি প্রবাহিত ব্যাহত হয়ে এবং যে খালগুলো তলদেশে মাটি জমে পানির ধারন ক্ষমতা কালের বিবর্তনে হারিয়ে গেছে সেই খাল গুলো খননের মাধ্যমে প্রশস্ত করা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্বাধীনতার পর এ প্রথম বর্তমান সরকারের পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় ফরিদগঞ্জ উপজেলায় দুটি খাল খননের কাজ দ্রুতগতিতে চলছে ।

খাল খননের প্রয়োজনে খাল পাড়ের প্রয়োজনীয় গাছ কেটে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি (ভেকু মেশিন) ব্যবহার করে দুই পাড়ে খাল খননের মাটি উত্তোলন করতে। ফরিদগঞ্জ ঐতিহ্যবাহী রুমুর খাল হয়ে নদনা, পাইকপাড়া, ভোটাল, আষ্টা বাজার দিয়ে যাওয়া এই খালটির খননের কাজ দ্রুতগতি পরিচালনা করে প্রায় শেষের পথে।

এলাকাবাসী জানান খাল খনন প্রকল্পের কাজ সুন্দর ভাবে অতিদ্রুত গতিতে চলছে। এই খাল খননে আমরা বছরের বেশি অংশই খালে পর্যাপ্ত পানি পাবো এতে করে আমাদের কৃষি চাষাবাদ সহ বিভিন্ন কাজে উপকৃত হবো । তাই আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ধন্যবাদ জানাই খাল খননের মহতি উদ্যোগ গ্রহণ করা ।

খাল খনন প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো. সাইফুল ইসলাম সরকার জানান, শেখ হাসিনার উন্নয়ন নদী-খাল খনন, শ্লোগানে সেচ প্রকল্পের উন্নয়ন জমিতে জলাবদ্ধতা দূরীকরণের অংশ হিসেবে সরকারি ভাবে নিয়ম মেনে এই খাল খননের জোড়ালো ভাবে কাজ চলছে । সাধারণ মানুষ এই খাল খননে আমাদেরকে সহযোগিতা করছে। এভাবে চললে আগামী ২০২১জুন মাসের মধ্যে খাল খননের কাজ সমাপ্ত হবে। তিনি বলেন আমাদের কাজের প্রয়োজনে (বেকু মেশিন)র জন্য খাল পাড়ে সরকারি জায়গায় থাকা কিছু স্হানে কিছু গাছ কাঁটা হয়েছে। যাহা নিয়ম মেনে হয়েছে।
তিনি আরো জানান ৯ কিলোমিটার ৭শ’ ১৫ মিটার দৈর্ঘ্যরে এই খালটি খননে ৬৩ লাখ ৩৯ হাজার ৭৫৩ টাকার কাজটি পেয়েছেন আমাদের সাম ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড কনস্ট্রাকশন লিমিটেড ।

22 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন