mizan rana som

কিছু কিছু সময় সাধারণের কথা শুনতে হয় …

মিজানুৃর রহমান রানা : সরকার তো জনগণের। জনগণ সরকারের। এক অপরকে ছাড়া মূল্যহীন। সরকার ছাড়া জনগণ, আর জনগণ ছাড়া সরকার তাসের ঘর। সুতরাং এক অপরকে ছাড়া অচল।

মানুষের ভালোবাসা নিয়ে পথচলা আর নিজের ইচ্ছেতো নিজের মর্জিমতো কাজ করা এ দুয়ের মধ্যে  ফারাক বিস্তর।  দেশ চালাতে হলে, দেশের উন্নয়নের কথা ভাবতে হলে, করতে হলে কিছু কিছু সময় মানুষের দাবি-দাওয়ার প্রতি নজর দিতে হয়। সাধারণ মানুষের সুখ-দুঃখ, সুবিধা-অসুবিধা, ভালো-মন্দের প্রতি নজর রাখা তো সরকারেরই দায়িত্ব। এটাই হচ্ছে মূলত গণতন্ত্র।

এর ফলস্বরূপ দেশে শান্তি বিরাজ করে। সাধারণ মানুষ সরকারের প্রতি আস্থায় ভাসে। শান্তি কামনা করে, দেশ শান্ত থাকে, আর সাধারণ মানুষের রুজি রোজগার বাড়ে।

নিশ্চিন্তে সাধারণ মানুষ পরিবারের সবাইকে নিয়ে চলতে পারে।

বিশ্বে করোনার কারণে এমনিতেই বাংলাদেশের মানুষের আয়-রোজগার বলতে তেমন একটা নেই। বেশিরভাগ মানুষ অসহায়ভাবে জীবন-যাপন করছে। আর এর মধ্যে যদি হরতাল-অবরোধ, জ্বালাও পোড়াও শুরু হয়, রেল-বাস বন্ধ থাকে তাহলে সবক্ষেত্রেই এর বিরূপ প্রভাব পড়ে।

সাধারণ মানুষের কষ্ট বেড়েই চলে।

কওমীরা দাবি তুলেছিলো মোদিকে বাংলাদেশে না আনার বিষয়ে। বিষয়টি সরকার গুরুত্ব সহকারে দেখে এসব আলেম-ওলামাসহ সব দলের সাথে একটা মতবিনিময় করা যেতো। তারপর তাদেরকে নিয়েও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা যেত। মোদিসহ অন্য রাষ্ট্রপ্রধানদেরকেও স্বাধীনতা দিবসে অতিথি করা যেত।

তাহলে দেশ অস্থিতিশীল হতো না। এভাবে তাজা প্রাণগুলো অকারণে চলে যেত না। আর দেশেও েএমন অরাজকতাময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না।

সাধারণ মানুষের মনে দীর্ঘদিন থাকতে চলে, বিষয়টি সরকারকে গভীরভাবে ভাবতে হবে।

শেয়ার করুন