salim Khan chandpur

চাঁদপুরে সেলিম খানকে ‘বংশের শ্রেষ্ঠ সন্তান’ আখ্যা দিয়ে  সোনার নৌকা উপহার

নিউজ ডেস্ক :
চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০ নম্বর লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন মো. সেলিম খান। এ উপলক্ষে তাকে সংবর্ধনা ও সোনার নৌকা উপহার দিয়েছে স্থানীয় ‘খান বংশ’। তাকে আখ্যায়িত করা হয়েছে ‘বংশের শ্রেষ্ঠ সন্তান’ হিসেবে।

শুক্রবার (৫ মার্চ) বিকেলে লক্ষ্মীপুর গ্রামের ইসমাইল খানের বাড়ি প্রাঙ্গণে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেলিম খান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগেরও সভাপতি।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সৈয়দ আহম্মেদ রতন খান।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেলিম খান বলেন, ‘আপনারা গত ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনে আমাকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। এজন্য আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আমি আপনাদের জনপ্রতিনিধি হিসেবে বিগত সময়ে যেভাবে এলাকার উন্নয়ন করেছি, আগামীতেও সেভাবে নিজেকে উৎসর্গ করে দিতে চাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ইউনিয়নে কোনো মাদকসেবীকে আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়া হবে না। মাদকের সাথে যারা জড়িত থাকবে এবং তাদেরকে যে সহযোগিতা করবে, সে আমার বংশের কিংবা পরিবারের হলেও তাকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেয়া হবে না। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখব। চাঁদপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য সফল শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সহযোগিতায় ১০ নম্বর লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আরও অনেক উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।’

চেয়ারম্যান সেলিম বলেন, ‘যাদের জমি আছে, ঘর নেই আমি তাদেরকে ঘর করে দেবো। হত দরিদ্র কোনো পরিবারে যদি উপযুক্ত মেয়ে থাকে তাহলে আমাকে জানাবেন। আমি আমার নিজ অর্থায়নে তার বিয়ের ব্যবস্থা করে দেব।’

অনুষ্ঠানের আয়োজক ‘খান বংশের’ সদস্যদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এই ইউনিয়নে আমাদের খান বংশের অনেক সুনাম রয়েছে। এ সুনাম ও ঐতিহ্য আমরা ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর। আমাদের নতুন প্রজন্মকে মানুষের মতো মানুষ করে গড়ে তুলতে হবে। যাতে করে আগামী প্রজন্ম আমাদের বংশের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখতে পারে।’

গত ১৭ জানুয়ারি লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়নের তফসিল ঘোষণা করা হয়। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ছিল ৩ ফেব্রুয়ারি। এ সময়ের মধ্যে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য পদে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় গত ১২ ফেব্রুয়ারি সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যানসহ ১৩ জনকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন।

শেয়ার করুন