arrest logo

হাইমচরে মোবারক হত্যার প্রধান ২ আসামী আটক

সাহেদ হোসেন দিপু :

হাইমচরে মোবারক হোসেন রাব্বী (২০)গাজিকে গলা কেটে হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত রাজন খান ও মহন খান কে আট করেছে হাইমচর থানা পুলিশ।

২২ মার্চ সোমবার ভোর ৫টায় জয়পুরহাট জেলার হিলি স্থল বন্দর দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় ঐ এলাকা হতে এ আসামীদের আটক করা হয়। হত্যা মামলায় ৩ নং আসামী সলেমান জামাদার কে গত ২১ মার্চ রোববার আটক করে রোববার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এনিয়ে ৪ অভিযুক্তদের মধ্যে প্রধান ৩ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে হাইমচর থানা পুলিশ।

জানাযায় উপজেলা ভিঙ্গুিলিয়া এলাকার স্থানীয় মিজান খান (বাবুর্চি)’র বখাটে পুত্র রাজন খান ও মহন খানের সাথে স্থানীয় শাহজান ভুইয়ার পুত্র মহিন ভুইয়ার সাথে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ চলে আসছিল।

এদের মধ্যে ইতিপূর্বে কয়েক দফা সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনা ঘটে, ১৮ মার্চ বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টায় ভিংগুলিয়া দুলাল কবিরাজ এর দোকানে রাজন খান সিগারেট পান করছিল। এসময় শাহজাহান ভুইয়ার পুত্র মহিন ভুইয়া’র সাথে সিগারেট পান নিয়ে বাদানুবাদ হয়।

সর্বশেষ ১৯ মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যা ৬.৫০ মিনিটের সময় মহিন ভুইয়া, তার বন্ধু মহিন খান ও মোবারক হোসেন রাব্বী গাজী সহ বাংলা বাজার উদ্দেশ্যে রওনা হলে ভিঙ্গুলিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা এলাকা রাস্তায় রাজন খান, মহন খান, ছলেমান জমাদর, আলাউদ্দিন জমাদার প্রতিপক্ষ মহিন ভুইয়া ও তার সঙ্গীদের গতিরোধ করে পূর্বের জের ধরে হামলা চালায়। রাজন খান দারালো ছুরি দিয়ে মহিন ভুইয়া, মহিন খান ও মোবারক হোসেন রাব্বী গাজীদের উপর এলোপাতাড়ি আঘাত করে। এসময় রাজন খান ছুরি দিয়ে মোবারকের গলায় আঘাত করিয়া রক্তাত্ব কাটা জখম করে। তখন তাদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালাইয়া যায়। স্থানীয় লোকজন গলাকাটা মোবারক গাজী ও গুরুতর আহত মহিন ভুইয়া, মহিন খান কে চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতলে নিলে চিকিৎসক মোবারককে মৃত ঘোষনা করেন।

এ ঘটনায় নিহত মোবারকের পিতা গনী গাজী বাদী হয়ে হাইমচর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১০, তারিখ ২০/৩/২১।

হাইমচর থানা অফিসার ইনচার্জ মাহবুবুর রহমান মোল্লা জানান নিহতের বাবা গনি গাজি বাদী হয়ে হাইমচর থানায় একটি এজহার দায়ের করেন। এজহারটি মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলায় হত্যার সাথে জড়িত প্রধান অভিযুক্ত রাজন খান ও তার ভাই মহন খান কে জয়পুর হাট জেলার পাচবিবি থানা হয়ে হিলি বন্দর এলাকা দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার পূর্ব পাচবিবি এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ মামলায় ৩ নং অভিযুক্ত সলেমান জমাদার কে ২১ মার্চ গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন