chandpur report 1974

চাঁদপুরে নদী থেকে ১২টি ড্রামভর্তি বাগদা চিংড়ির রেনুসহ জেলে আটক

চাঁদপুরের মেঘনায় সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাগদা চিংড়ির রেনু ধরা ও পরিবহন ও সংরক্ষণের দায়ে ১২টি ড্রামভর্তি রেনুসহ এক জেলেকে আটক করেছে নৌ পুলিশ। আজ শুক্রবার সদর উপজেলার হরিণা এলাকা থেকে সেকান্দর বেপারী নামে ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে রেনুভর্তি ড্রামগুলো ছাড়াও ইঞ্জিনচালিত একটি নৌকাও আটক করা হয়।

হরিণাঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক গোলাম মো. নাসিম হোসেন জানান, জাটকা সংরক্ষণ কর্মসূচি চলাকালে নদীতে সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এমন পরিস্থিতিতে একশ্রেণির অসাধু জেলে কৌশলে নদী থেকে বাগদা চিংড়ির রেনু সংগ্রহ করছে। পরে এসব রেনু দেশের দক্ষিণাঞ্চলের চিংড়িঘেরে সরবরাহ করে একটি চক্র। বিষয়টি অবৈধ হওয়ায় নৌ পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই ব্যক্তিকে রেনুসহ হাতেনাতে আটক করে। তবে এর সঙ্গে জড়িত আরো বেশ কয়েকজন গাঢাকা দিয়েছে বলে জানান, নৌ পুলিশের এই কর্মকতা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১২টি ড্রামে প্রায় আড়াই লাখ বাগদা চিংড়ির রেনু ছিল। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৫ লাখ টাকা।

এদিকে, আটক করা রেনুগুলো চাঁদপুরের মেঘনা নদীতে অবমুক্ত করা হয়।

অন্যদিকে, চিংড়ির রেনু আটকের ঘটনায় সদর মডেল থানায় নৌ পুলিশ বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছে।

শেয়ার করুন