chandpur report 1919

প্রশাসনের কঠোরতার মধ্যেও মতলব উত্তরে লকডাউন মানছেনা অনেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক, মতলব উত্তর :

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সরকারের ৭ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। লকডাউনের প্রথম দিন শেষ হয়েছে।
সোমবার (৫ মে) সকাল থেকে এলাকায় ৭ দিনের কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে ছিলেন উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, সংবাদকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকরা।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সরকারের দেওয়া ১৮ নির্দেশনা মানাতে ও ডকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলার বিভিন্ন বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান পরিদর্শন করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্নেহাশীষ দাশ।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রশাসন লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে কঠোর অবস্থানে থাকলেও সাধারণ মানুষের মাঝে তেমন সচেতনতা সৃষ্টি হয়নি। কিছু সাধারণ মানুষ ও অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের সাথে চোরপুলিশ খেলা করেছে। উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ সদস্যরা এক স্থান ত্যাগ করে অন্যস্থানে গেলে সুযোগ বুঝে অসাধু ব্যবসায়ীরা অতি মুনাফার লোভে ব্যবসা চালিয়ে যেতে মরিয়া।
নির্দেশনায় সকল প্রকার দোকান পাট, মার্কেট, হাট, ফুটপাতের দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ এবং কাঁচা বাজার ও মুদির দোকান স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে সকাল থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত খোলা রাখার অনুমতি থাকলেও নির্দেশ অমান্য করে খোলা রেখে ব্যবসায়িক কার্য সম্পাদন করতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্নেহাশিষ দাশ বলেন, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, সেচ্ছাসেবক সকাল থেকে উপজেলায় লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করেছি। নির্দেশনা অমান্য করায় পথচারী, ব্যবসায়ীদের প্রথম দিন বিধায় সতর্ক করা হয়েছে। এরপর থেকে জরিমানা গুণতে হবে। অধিকাংশ জনসাধারণ ও ব্যবসায়ীরা নির্দেশনা মানলেও কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লুকোচুরি করে ব্যবসা করার চেষ্টা করছে বলে জানতে পেরেছি। এদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার থেকে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন