নেতা hafajat hapajot

‘বাবরি মসজিদের নামে বিদেশ থেকে টাকা এনেছে মামুনুল’

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশিদ বলেছেন, বাবরি মসজিদের নাম দিয়ে সৌদি আরব, কাতার ও দুবাই থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা এনেছে মামুনুল হক। বিদেশি টাকায় উগ্র জঙ্গিবাদে উস্কানি দিয়ে মাদ্রাসার ছাত্রদের মাধ্যমে একদিকে জামায়াত ‍ও অন্যদিকে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার নিদের্শনায় মওদুদী মতবাদের প্রচারণা চালিয়েছে সে।

রোববার (২৫ এপ্রিল) রাজধানীর তেজগাঁওয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তবে মামুনুল হক কত টাকা এনেছেন, তার পরিমাণ সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু বলতে পারেননি তিনি।

তিনি বলেন, ২০০৫ সালে মুফতি নেয়ামতউল্লাহ ও মামুন পাকিস্তান গিয়ে ৪৫ দিন অবস্থান করেছে। এ সময় সেখান থেকে তারা মডেল এনে ২০১৩ সালের শাপলা চত্বরের ঘটনা এবং আজ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন জায়গায় উগ্রবাদী কায়দায় হাসপাতাল, সরকারি প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর করেছে, পুলিশের গায়ে আঘাত করেছে, কিছু কোমলমতি বাচ্চাদের হত্যা করেছে। সবকিছুই ছিল হেফাজতকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করা।

মামুনুলের শ্বশুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি মেজর ডালিমের ভায়রা ভাই, ডিসি হারুনের আগের এমন বক্তব্যের বিষয়ে নিশ্চিত কিছু জানা গেছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে ডিসি হারুন বলেন, আমাদের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি (মামুনুল) বলেছেন, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না। তবে আমরা তার তথ্য পেয়েছি। এটার আরও তদন্ত দরকার আছে।

9 জন পড়েছেন
শেয়ার করুন